১৭ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে পরীক্ষামূলক সম্প্রচারের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। দেশের বেশির ভাগ টিভি চ্যানেল সম্প্রচারের জন্য বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’র সঙ্গে চুক্তি করেছে। টিভি চ্যানেলগুলো রবিবার থেকেই ফ্রিকোয়েন্সি পাবে। চুক্তিতে সরকারী বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেলগুলো তিন মাস ‘ফ্রি ফ্রিকোয়েন্সি’ পাবে। এরপর ফ্রিকোয়েন্সির ভাড়া নির্ধারণ করা হবে। তবে এই ভাড়া কত হবে তা এখন পর্যন্ত নির্ধারণ করেনি স্যাটেলাইট কোম্পানি। রবিবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ প্রধান অতিথি, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের বর্ষপূর্তি ও সেবা বিপণন কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের অপূর্ণতা ছিল আমাদের একটি স্যাটেলাইট ছিল না, সেটি আমরা পেরেছি। এখন সাশ্রয়ী মূল্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টিভি চ্যানেলগুলো সম্প্রচার এবং ব্যাংকগুলো ব্যাংকিং সেবা দিতে পারবে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, স্যাটেলাইটের এখন পর্যন্ত কোন সমস্যা পাওয়া যায়নি যেটা আলোচনার বিষয় হতে পারে। আমাদের ছেলেরাই এটি পরিচালনা করছে। বিদেশীদের খুব বেশি দিন প্রয়োজন হবে না। বাংলাদেশের ইঞ্জিনিয়াররাই স্যাটেলাইট পরিচালনা করতে পারবেন। গাজীপুরে প্রায় ১৩ একর জায়গার ৫ একরজুড়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। সেখানে বিদেশী প্রকৌশলীরা কাজ করছেন। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে ৪০ ট্রান্সপন্ডার রয়েছে, যার ২০টি বাংলাদেশ ব্যবহার করবে। বাকি ২০টি বিদেশী বা প্রতিবেশী দেশের কাছে ভাড়া দেয়া হবে। উৎক্ষেপণের পরবর্তী এক বছর পর্যন্ত এর তদারক করবে নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান। তবে এখনই বাংলাদেশের ইঞ্জিনিয়ারই এটি পরিচালনায় সক্ষম হচ্ছেন।

রবিবার বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) সঙ্গে যমুনা টিভি, সময় টিভি, দীপ্ত টিভি, বিজয় টিভি, বাংলা টিভি ও মাই টিভি এবং সোনালী ব্যাংক স্যাটেলাইটের সেবা নেয়ার জন্য সমঝোতা স্মারক সই করেছে। এর আগে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে, সময় টিভি, ডিবিসি নিউজ, ইন্ডিপেনডেন্ট টিভি, এনটিভি, একাত্তর টিভি, বিজয় বাংলা ও বৈশাখী টিভি। বাকি টেলিভিশনগুলোও অল্পদিনের মধ্যে চুক্তিবদ্ধ হবে বলে অনুষ্ঠানে বলা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টেলিভিশনগুলোর খরচ কমে যাবে তেমনি দুর্গম এলাকাতে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়া সম্ভব হবে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট বাংলাদেশকে অন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছে।

বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, টেলিভিশন চ্যানেলগুলো যে দরে বাইরে থেকে ব্যান্ডউইথ কেনে তার থেকে কম দামে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট থেকে কিনতে পারবে। তবে এ দাম এখনই নির্ধারণ করা হয়নি। আগামী তিন মাসের মধ্যে ফ্রিকুয়েন্সির দাম নির্ধারণ করা হবে।