২৫ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফিরলেন আমির, চমক ওয়াহাব

  • পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে শেষ মুহূর্তে তিন পরিবর্তন

শাকিল আহমেদ মিরাজ ॥ বিশ্ব ক্রিকেটে স্বীকৃত ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান। যাদের নিয়ে পূর্বানুমান অসম্ভব। কেবল মাঠের পারফর্মেন্স নয়, মাঠের বাইরেও এটি চিরসত্য। বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে মোহাম্মদ আমিরের জায়গা না পাওয়া যতটা আলোচিত ছিল, তার চেয়েও বেশি আলোচনার জন্ম দিয়ে চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সেখানে আমির ফিরেছেন অনেকটা অনুমিত ভাবে, তবে বড় চমক ওয়াহাব রিয়াজের জায়গা করে নেয়া! রঙিন পোশাকে যিনি গত কয়েক বছরে মোটেই আলোচনায় ছিলেন না। ঘোষিত দলের আরেক সদস্য হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান আসিফ আলি। বাদ পড়েছেন জুনাইদ খান, ফাহিম আশরাফ ও আবিদ আলি। পরশু স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছে পাঁচ ওয়ানডের সরিজে ৪-০’ ব্যবধানে বিধ্বস্ত হওয়ার একদিন পর সোমবারই বিশ্বকাপের জন্য চূড়ান্ত এই দল ঘোষণা করে পাকিস্তান।

প্রধান নির্বাচক ইনজাম-উল-হক জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডে মৌসুমের শুরুতে এতটা ফ্ল্যাট উইকেট আশা করেননি তারা। ওয়ানডে সিরিজ দেখার পর বুঝতে পারেন যে, বিশ্বকাপ স্কোয়াডে পরিবর্তন আনতে হবে। আরব আমিরাতে নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাঁচ ওয়ানডের সিরজে হোয়াইটওয়াশের পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়া পাকিস্তানের জন্য বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ড সফরটা ছিল শেষ প্রস্তুতির মঞ্চ। সেখানেও চরম ব্যর্থ সরফরাজ আহমেদের দল পাঁচ ওয়ানডে হেরেছে ৪-০ ব্যবধানে। প্রায় প্রতিটি ম্যাচ সাড়ে তিন শ’ রান করেও প্রতিপক্ষকে বেঁধে রাখতে পারেনি সফরকারীরা। বোলিংয়ে দৈন্যতা ফুটে উঠেছে প্রবলভাবে। সিরিজে পেসারদের এমন বাজে পারফর্মেন্স আমিরের দরজা খুলে দিয়েছে। শেষ মুহূর্তে বিশ্বকাপ দলে আমিরের অন্তর্ভুক্তির কারণ তার গতি। সেই সঙ্গে তার লাইন ও লেংথ ইংলিশ কন্ডিশনে কার্যকর বলেই মানছেন প্রধান নির্বাচক ইনজামাম, আমরা বিশ্বকাপে মোহাম্মদ আমিরকে নিচ্ছি, কারণ অন্য বোলারদের বলের গতি ইংলিশ উইকেটে অকার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। আমির সেখানে তার গতি, লাইন ও লেংথ দিয়ে ভাল করতে পারবে বলে আমরা মনে করছি।

আমিরের অন্তর্ভুক্তি প্রত্যাশিত হলেও ওয়াহাব রিয়াজ কিন্তু বড় চমক। অভিজ্ঞ এই পেসার বিশ্বকাপ উপলক্ষে গড়া ২৩ জনের প্রাথমিক দলেই ছিলেন না। তার ফিটনেস নিয়েও সমস্যা ছিল। তবে ইনজামাম জানিয়েছেন, তাকে দলে নেয়া হয়েছে ওই ইংলিশ কন্ডিশনের কথা ভেবেই, এই মুহূর্তে ইংল্যান্ডের উইকেটগুলোর যে অবস্থা, তাতে ওয়াহাব আদর্শ বোলার। ৩৩ বছর বয়সী ওয়াহাব দুই বছর আগে সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন। তার ফিটনেস নিয়েও সমস্যা ছিল। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ বল করেছিলেন তিনি। কাঁপন ধরিয়ে দিয়েছিলেন শেন ওয়াটসনদের ডেরায়। বার্মিংহামে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির গ্রুপ-পর্বের ম্যাচে ভারতকে ১২৪ রানের বড় ব্যবধানে হারানোর সময়ও শেষ বারের মতো একদিনের ম্যাচ খেলতে দেখা গিয়েছিল ওয়াহাবকে। আর ফাইনালে ভারত-বধে শিরোপাজয়ের অন্যতম নায়ক ছিলেন মোহাম্মদ আমির। বিশ্বকাপের প্রাথমিক দলে তার জায়গা না হওয়ায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন প্রধান নির্বাচক ইনজামাম এবং কোচ মিকি আর্থার।

গ্রেট ওয়াসিম আকরাম থেকে অনেক সাবেক তারকা বলেছিলেন, ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে আমিরকে ছাড়া তারা পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দল কল্পনাই করতে পারেন না। ইনজামাম-আর্থার অবশ্য জানিয়েছিলেন ইল্যান্ড সফরে ভাল করলে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু অসুস্থতার জন্য এই সিরিজেও খেলতে পারেননি আমির। তবে অন্য পেসারদের ব্যর্থতা ঠিকই তার কপাল খুলে দিল। শেষ পর্যন্ত এই বাঁহাতি পেসারকে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপে দেখা যাবে। আসিফ অবশ্য ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে দুটি ফিফটি করেছেন।

বিশ্বকাপের জন্য পাকিস্তানের পনের সদস্যের চূড়ান্ত দল ॥ সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), ফখর জামান, ইমাম-উল-হক, আসিফ আলি, বাবর আজম, হারিস সোহেল, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ হাফিজ, শাদাব খান, ওয়াহাব রিয়াজ, ইমাদ ওয়াসিম, মোহাম্মদ আমির, হাসান আলি, শাহেন শাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ হাসনাইন।