২৫ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নান্দাইলে মোবাইল চুরির ঘটনায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ২

নান্দাইলে মোবাইল চুরির ঘটনায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ২

সংবাদদাতা, নান্দাইল, ময়মনসিংহ ॥ মে:উপজেলায় মোবাইল ফোন চুরির ঘটনায় তারিফ হাসান হৃদয় (১৯) নামে এক কলেজ ছাত্রকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে বালিপাড়া সেতুর নিচে এই ঘটনা ঘটেছে। নিহত হৃদয় চর বেতাগৈর ইউনিয়নের চরলক্ষ্মীদিয়া গ্রামের মৃত: মজিবুর রহমানের পুত্র। রোববার পুলিশ তার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মাজহারুল ইসলাম পারভেজ বাদী হয়ে নান্দাইল মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহতের ভাই মাজহারুল ইসলাম জানায়, তাঁর ভাই স্থানীয় খুররম খান চৌধুরী মহাবিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিল। গত চার মাস পূর্বে হৃদয়ের মোবাইল ফোন চুরি হয়ে যায়। এক সপ্তাহ আগে একটি মেয়ে ডেকে নিয়ে চুরি হওয়া ফোনটি ফেরত দেয়। ওই মেয়ের কাছ থেকে জানতে পারে মোবাইল ফোনটি তাকে (মেয়ে) উপহার দেয় ইলিয়াছ (২০)। জানতে পেরে ইলিয়াছকে চাপ দিলে ফোন চুরির কথা স্বীকার সে।

ফোন চুরির ঘটনা নিয়ে ইলিয়াছের সাথে ওই মেয়ের সর্ম্পকের (প্রেমের) টানাপোড়েন শুরু হয়। এ নিয়ে হৃদয়ের প্রতি চরম ক্ষুদ্ধ হয় ইলিয়াছ। এ ঘটনার জের ধরে শনিবার রাতে হৃদয়কে ফোনে ডেকে নেয় ইলিয়াছ। এরপর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। সেহরির আগে তাঁর ছোটভাইকে খুঁজতে বের হলে জানতে পারেন কাপড়ে রক্তমাখা এক ব্যক্তিকে আটকে রেখেছে এলাকাবাসি। সেই ব্যক্তি বালিপাড়া সেতুর নিচে এক ব্যক্তিকে কুপিয়েছে। এ খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে হৃদয়ের লাশ সনাক্ত করে।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চরভেলামী গ্রামের বাবুল মিয়া (৩৫) ও সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার আবদুল কাদিরের পুত্র শাহীনকে (২০) গ্রেফতার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এই হত্যাকান্ডে ভাড়াটে খুনিকে ব্যবহার করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।