১৯ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রমজানে ইনকামটা একটু কম করলে কী হয়

  • বিআরটিসি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে কাদের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এবার ঈদযাত্রা আগের চেয়ে অনেক সহজ ও স্বস্তিদায়ক হবে বলে আশাবাদী সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, এবার ইতিহাসের সবচেয়ে ভাল অবস্থায় আছে মহাসড়ক। সড়কপথে স্বস্তিদায়ক যাত্রার নিশ্চয়তা দিতে পারব- এমন একটা অবস্থানে আমরা পৌঁছেছি। ঈদের আগেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় গোমতী সেতু খুলে দেয়া হয়েছে। আশা করছি এখন ঢাকা থেকে চার ঘণ্টায় চট্টগ্রাম পৌঁছে যাওয়া যাবে বলে। তাছাড়া সেতু খুলে দেয়ার পর যাতায়াত সহজ হয়েছে এমন কথাও বলছেন যাত্রীরা। রবিবার মতিঝিলে বিআরটিসির সভাকক্ষে ঈদ স্পেশাল সার্ভিস পর্যালোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিআরটিসিতে কর্মরত অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের হাতে পাওনা তুলে দেন সড়ক মন্ত্রী।

এদিকে টঙ্গী-গাজীপুর সড়কের যানজট বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কাঁচপুর-মেঘনা-গোমতী সেতু খুলে দেয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কোন যানজট থাকবে না। উত্তরাঞ্চলগামী টাঙ্গাইল সড়কের দু’টি ফ্লাইওভার ও চারটি আন্ডারপাস খুলে দেয়ায় ওখানেও কোন যানজট থাকবে না। তবে টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত রাস্তায় কিছুটা সমস্যা হতে পারে। এ সমস্যা নিরসনে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রীকে সভাপতি করে একটি কমিটি করেছি। এ কমিটি যানজট নিরসন করতে পারবে বলে আশা করছি। এছাড়া সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত সড়কে ৩শ’ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবে বলে জানান সড়ক মন্ত্রী।

টঙ্গী-গাজীপুর সড়কের যানজট নিরসন কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন- গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার, বিআরটিএ কর্মকর্তা ও রুট ট্রানজিটের প্রকল্প পরিচালক।

যানবাহনগুলো যদি শৃঙ্খলা মেনে চলে তাহলে সড়কে যানজট থাকার কথা নয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমি বলে দিয়েছি, গাজীপুরের সড়কে ঈদ পর্যন্ত কোন পাইলিং হবে না। এছাড়া বাকি রাস্তা যান চলাচলের উপযোগী রয়েছে। যানবাহন যদি শৃঙ্খলা মেনে চলে তাহলে সড়কে যানজট থাকার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, সড়ক পথে একটা স্বস্তিদায়ক যাত্রা যেন নিশ্চিত করতে পারি, সেজন্য এসেছি। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সড়ক পরিবহনে বৈজ্ঞানিক পরিবর্তন শুরু হয়েছে।

ঈদের সময় বিআরটিসির ১ হাজার ১৪২ বাস আন্তঃজেলা যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত থাকবে জানিয়ে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, এর মধ্যে ২৫৩ নতুন বাস যুক্ত করা হয়েছে। ঈদের সময় গণপরিবহনের সঙ্কট নিরসনে বিআরটিসি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিআরটিসি দেউলিয়া হলে আপনারাও দেউলিয়া হবেন। রোজার মাস সংযমের মাস। এ মাসে ইনকামটা একটু কম করলে কী হয়! বিআরটিসি আগের মতো যেন সুনামের ধারায় ফিরে আসে, সেদিক বিবেচনা করে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন। সৎ ও পরিচ্ছন্নভাবে বিআরটিসিকে পরিচালনা করলে জনগণের সামনে সুনাম অক্ষুণ্ণ থাকবে। বর্তমানে বিআরটিসির আগের সেই সুনাম এখন আছে বলে আমি মনে করি না। এবার বিআরটিসির আগের বাসগুলোর সঙ্গে নতুন ২৫৩ বাস যুক্ত হয়েছে। আপনারাও বিআরটিসিকে আকর্ষণীয় করতে নতুন করে শপথ নিন।

বিআরটিসি সার্ভিস নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে সড়ক মন্ত্রী বলেন, বিআরটিসির বাসগুলো এত তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায় কেন?, এসি নষ্ট হয়ে যায়, জানালার কাঁচ থাকে না, এটা কেন? যারা এর দায়িত্বে আছেন তারা কি এসব দেখেন না?

কাদের বলেন, উত্তরাঞ্চলগামী ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কের দুটি ফ্লাইওভার ও চারটি আন্ডারপাস খুলে দেয়ায় যানজট না থাকলেও টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত রাস্তায় কিছুটা সমস্যা হতে পারে। তবে আশা করছি সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জনদুর্ভোগ কমে আসবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদের সময় বিআরটিসির বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাউকে অপরাধের কারণে ছাড় দেয়া হবে না। সরকারের এ মেয়াদের মধ্যে বিআরটিসিকে আধুনিক, পরিচ্ছন্ন, স্বচ্ছ প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এ লক্ষ্যে বিআরটিসির প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে নিবেদিতপ্রাণ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সদ্য সংগৃহীত বিআরটিসির বাস লিজ দেয়ার ক্ষেত্রে বিদ্যমান নীতিমালা যথাযথভাবে প্রতিপালন করতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে কোন ধরনের অনিয়ম মেনে নেয়া হবে না। এ সময় বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়াসহ উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কাদের বলেন, এই সরকার কৃষকবান্ধব। কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয় এমন কিছু সরকার করবে না। ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে যা যা দরকার, তা সবই করা হবে।

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন ও আন্দোলনে ব্যর্থতার পর সরকারের সমালোচনা না করলে বিএনপির রাজনীতি টেকে না।’

বিএনপির সমালোচনায় সত্যতা থাকলে সরকার নিজেদের সংশোধন করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলন রাজনৈতিক হলে আমরা রাজনৈতিকভাবেই মোকাবেলা করব। সহিংসতা হলে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীই মোকাবেলা করবে। বিআরটিসি চেয়ারম্যান ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া বলেন, গত ২০ মে থেকে বিআরটিসির অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হয়েছে। ২৭ মে থেকে স্পেশাল সার্ভিস শুরু হবে। এর আগে সকালে সচিবালয়ে নিজ দফতরে মন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন এডিবির এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ। সাক্ষাতকালে দেশে দক্ষ গাড়িচালক তৈরি এবং চালকদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দিতে এডিবি আর্থিক সহায়তা প্রদানে সম্মত হয়েছে বলে জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া