১৭ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্যস্ত বাউল শিল্পী হাসিনা সরকার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের অন্যতম জনপ্রিয় বাউল শিল্পী হাসিনা সরকার। মেধাবী ও সুরেলা কণ্ঠের এইশিল্পী দেশে-বিদেশে বাউল পরিবেশন করে খ্যাতি পেয়েছেন। সঙ্গীতর্চার স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন একাধিক সম্মাননা। একজন বাউলশিল্পী হিসেবে গান নিয়েই তার সার্বক্ষণিক ব্যস্ততা। হাসিনা সরকার জানান, বাংলাদেশ বেতার, টেলিভিশনসহ দেশে-বিদেশের অনেক জায়গায় গান করেছি। বাজারে আমার এ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে অনেকগুলো। এরমধ্যে ‘গুরু শিষ্য’, ‘হাসর কেয়ামত’, ‘শরিয়ত মারফত’, ‘খাজা বড় পীর’, ‘পোড়ামনের আগুন’, ‘বন্ধু বিদেশ’, ‘ভালবাসার ময়না পাখি‘, ‘দয়ার সাগর’, ‘কমলা সুন্দরী’, ‘বঙ্গবন্ধুর রক্ত’সহ বেশকিছু এ্যালবাম প্রকাশের পর দর্শক-শ্রোতাদের কাছে সাড়া পেয়েছি। সাবেক প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নানের নিকট ও কয়েকদিন আগে শিল্পকলা একাডেমিতে রেল মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনের হাত থেকে পুরস্কার নিয়েছেন বলেও জানান হাসিনা সরকার। সামনে দেশ-বিদেশের বেশ কয়েকটি শো হাতে আছে তার।

ছোটবেলা থেকে গান বেশ পছন্দ করতেন। ২০০২ সাল থেকে ওস্তাদ আসলাম সরকারের নিকট গানের তালিম নেন বলে জানান তিনি। হাসিনা সরকার বলেন, গান নিয়েই বেঁচে থাকা আমার। ওস্তাদ আসলাম সরকারের পর আমি ২০০৭ সাল থেকে লতিফ সরকারের কাছে গানের তালিম নিয়েছি। এরপর বাউলশিল্পী হিসেবে বাংলাদেশের আনাচে কানাচে গান করার পাশাপাশি দেশের বাইরেও শো করেছি।২০০২ সাল থেকে ওস্তাদ আসলাম সরকারের নিকট গানের তালিম নেন বলে জানান তিনি। হাসিনা সরকার বলেন, গান নিয়েই বেঁচে থাকা আমার। ওস্তাদ আসলাম সরকারের পর আমি ২০০৭ সাল থেকে লতিফ সরকারের কাছে গানের তালিম নিয়েছি। এরপর বাউলশিল্পী হিসেবে বাংলাদেশের আনাচে কানাচে গান করার পাশাপাশি দেশের বাইরেও শো করেছি। আর গান নিয়েই সারাজীবন থাকতে চান এই জনপ্রিয় বাউল নারী শিল্পী। তার জন্য শুভ কামনা।