১৬ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যানজট কমাতে ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি ব্যবহার নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে

  • সংসদে কাদের

সংসদ রিপোর্টার ॥ সড়কের যানজট কমিয়ে আনতে ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি ব্যবহার নিরুৎসাহিত করতে সচেষ্ট রয়েছে সরকার। এটা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসতে ১০০ নন-এসি স্কুলবাস, ২০০ একতলা এসি বাস এবং ২০০ একতলা এসি সিটি বাস সংগ্রহের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

বুধবার এম. আবদুল লতিফের লিখিত প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সংসদকে এ তথ্য জানান। স্পীকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকেলে বাজেট অধিবেশন শুরু হয়।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার নানামুখী পদক্ষেপের অংশ হিসেবে ভারত থেকে ৬০০ বাস কেনার জন্য দুটি ভারতীয় গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বিআরসিটির মাধ্যমে ভারতীয় লাইন অব ক্রেডিট এলওসি-২ এর আওতায় বিআরটিসির জন্য ৩০০ দ্বিতলা, ১০০ একতলা নন-এসি বাস, ১০০ একতলা এসি সিটি বাস এবং ১০০ একতলা এসি ইন্টারসিটি বাস আমদানির কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে। গত ৬ জুন পর্যন্ত ২৬৬ বাস বিআরটিসির বহরে যুক্ত হয়েছে। আগামী মাসের মধ্যে বাকি বাসগুলো সংস্থার বহরে যুক্ত হবে।

হাজী মোঃ সেলিমের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাসে যাত্রীদের হয়রানি হতে রক্ষা করার লক্ষ্যে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে বিআরটিএ’র নির্বাহী ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটগণ নিয়মিতভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আসছে। গত ৩১ মে পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের ৩৩ হাজার ৩০৫ মামলার ৬৩ কোটি ২৬ লাখ ২ হাজার ৮২০ টাকা জরিমানা আদায়সহ ১৯৫ গাড়ি ডাম্পিং স্টেশনে প্রেরণ এবং ৫৯৮ জন আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- প্রদান করা হয়েছে।

বিএনপি থেকে নির্বাচিত এমপি মোঃ হারুনুর রশীদের লিখিত প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সারাদেশে প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনায় মানুষ মারা যাওয়ার উল্লেখযোগ্য কারণ হচ্ছে ওভারলোডিং, ওভারটেকিং, যান্ত্রিক ত্রুটি, যাত্রীদের অসচেতনতা, চালকদের ট্রাফিক সাইন, ট্রাফিক আইন ও লেন বিধি না মানার প্রবণতা, একনাগাড়ে ৫ ঘণ্টার বেশি গাড়ি চালনা ইত্যাদি। এসব কারণসমূহ সমাধানে ৮ কারণ চিহ্নিত করে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। এর মধ্যে একটি পথচারীকে জেব্রাক্রসিং, ফুটওভারব্রিজ ও আন্ডারপাস ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।

ওই এমপির আরেক প্রশ্নে জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে অর্থাৎ চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত সড়ক দুর্ঘটনায় মোট ২৫ হাজার ৫২৬ জন মারা গিয়েছে এবং এতে আহত হয়েছে ১৯ হাজার ৭৬৩ জন।

এমপি আবদুস শহীদের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়কে চলাচলরত অনেক চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই একথাটি অস্বীকার করার কোন উপায় নেই। এক্ষেত্রে কিছুটা সমন্বয়হীনতা রয়েছে এবং লাইসেন্সবিহীন চালকদের আটকে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীরও গাফলতি বা দায়িত্ব পালনে অবহেলা আছে। সমন্বয়হীনতা কমিয়ে সচেতনতা বাড়াতে সচেষ্ট রয়েছে মন্ত্রণালয়।