১৮ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভাল্লুকের জিহ্বায় কামড় দিয়ে প্রাণরক্ষা

ভাল্লুকের জিহ্বায় কামড়  দিয়ে প্রাণরক্ষা

সাইবেরিয়ার গহীন জঙ্গলে হরিণের শিং সংগ্রহে গিয়ে ভাল্লুকের আক্রমণের শিকার হন এক রুশ নাগরিক। দক্ষিণ সাইবেরিয়ার টুভা অঞ্চলের জঙ্গলে দুই বন্ধুর সঙ্গে হরিণের শিং সংগ্রহে গিয়েছিলেন

নিকোলাই ইরজিত (৩০) নামে এই ব্যক্তি। সংরক্ষিত বনাঞ্চলে যাওয়া শুধু ঝুঁকিপূর্ণই নয়, বেআইনীও বটে। তাদের কাছে মৃত পশুর দেহাবশেষ সংগ্রহের অনুমতিও ছিল না। হরিণের শিং ওষুধ, আসবাবপত্র তৈরিসহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হয়। এ কারণে কালোবাজারে এর দাম বেশ চড়া। হরিণের খোঁজে ইরজিত একা একা জঙ্গলের অনেক ভেতরে চলে যান। হঠাৎ বিশালাকার এক বাদামি ভাল্লুক তার পথ আগলে দাঁড়ায়। ৬০০ কেজি পর্যন্ত ওজনের সাইবেরিয়ান ভাল্লুক বেশ হিংস্র ও শক্তিশালী। তারা মানবদেহ সহজেই ছিন্নভিন্ন করে ফেলতে সক্ষম। এ অবস্থায় চিৎকার করে ভাল্লুকটিকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করেন নিরস্ত্র ইরজিত। কিন্তু এতে হিতে বিপরীত ঘটে। না পালিয়ে উল্টো তাকে আক্রমণ করে বসে প্রাণিটি। সে ইরজিতের মুখ, হাত, পেটে অনবরত কামড় দিতে থাকে। ক্ষত-বিক্ষত হলেও হাল ছাড়েননি তিনি। ভাল্লুকটি তার মুখ কাছে আনতেই এর জিহ্বা কামড়ে ধরেন ইরজিত। এতে ভয় পেয়ে যায় দানবাকৃতির জন্তুটি। এবার সে শিকার ছেড়ে ছুটে পালায়। -ওয়েবসাইট