১৮ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সম্পদ ও জনবলের হিসাব রাখতে অক্টোবরেই ইআরপি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কর্মী আর সম্পদের হিসাব রাখতে বিদ্যুত বিভাগ এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং (ইআরপি) বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে ইআরপিতে জনবল কাঠামো অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, এখন সম্পদ অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। ইআরপি বাস্তবায়ন হলে সিদ্ধান্তগ্রহণকারী উর্ধতনদের আর তথ্য চাইতে হবে না। চাইলেই নিজের কম্পিউটারে প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে তিনি সকল তথ্য তাৎক্ষণিক দেখে নিয়ে সিদ্ধান্ত দিতে পারবেন। বুধবার এ সংক্রান্ত এক বৈঠকে বিদ্যুত বিভাগ জানায়, আগামী অক্টোবর থেকেই ইআরপি দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে।

বৈঠকে বিদ্যুত, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, আগামী প্রজন্মের কাজের পরিবেশ সন্তোষজনক করতে দ্রুত ইআরপি বাস্তবায়ন প্রয়োজন। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে ইআরপি প্রয়োগের বিকল্প নেই। সংস্থার সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে ইআরপি কার্যকর অবদান রাখবে।

তিনি একটি গ্যাস খনির কর্মকর্তাদের উদাহরণ টেনে বলেন, প্রতিষ্ঠানটির এমডিসহ উপরের দিকের ১৪ কর্মকর্তা একই সঙ্গে একটু বেশি সময় বিদেশ ভ্রমণে গেছেন। একসঙ্গে ১৪ কর্মকর্তা বিদেশ গেলে প্রতিষ্ঠানটি কীভাবে চলে! প্রতিমন্ত্রী বলেন ইআরপি হলে এসব সমস্যা আর থাকবে না। তখন ছুিটতে গেলে, বিদেশে গেলে তার একটি হিসাব ইআরপিতে থাকবে যা দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে। তিনি বলেন, প্রযুক্তি ব্যবহারে অনীহা দূর করতে হবে। দফতর প্রধান, সচিব বা মন্ত্রী সংশ্লিষ্ট অফিসের সার্বিক অবস্থা ড্যাশবোর্ডের মাধ্যমে জানা যাবে। এতে উভয় পক্ষই উপকৃত হবে।

টেকভিশন, মাইক্রোসফট, কম্পিউটার সার্ভিস ও টেকনোহেভেনের মাধ্যমে ইআরপি বাস্তবায়ন করছে বিদ্যুত বিভাগ। বৈঠকে বলা হয়, এইচআর (হিউম্যান রিসোর্স) সংক্রান্ত সব তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। সম্পদের ডেটা সংগ্রহ করা হচ্ছে। ক্রয় ও হিসাব এবং অডিট সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের কাজ চলমান। পরে সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুত খাত দেশের অন্যতম সেবা খাত। ৯৩ ভাগ মানুষ এখন বিদ্যুত সুবিধার আওতায় এসেছে। এত বড় সেবা খাত সঠিক পরিচালনা করতে দ্রুত ডিজিটাল সেবা দিতে হবে। ইআরপি চালু হলে কেন্দ্রীয় পর্যায়েই সব পর্যবেক্ষণ করা যাবে। গ্রাহক সেবার মানও বাড়বে।

বিদ্যুত বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে পিডিবি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী খালেদ মাহমুদ, আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) মঈনউদ্দিন, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইনসহ দফতর প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ