১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উত্তেজনার ভারত পাকিস্তান মহারণ আজ

 উত্তেজনার ভারত পাকিস্তান  মহারণ আজ

শাকিল আহমেদ মিরাজ ॥ বিশ্বকাপে বহুল আলোচিত ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ আজ। ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বৃষ্টির শঙ্কা মাথায় নিয়ে মুখোমুখি উপমহাদেশের দুই ক্রিকেট পরাশক্তি, চিরবৈরী দুই দেশ। ব্যাট-বলের লড়াই দর্শনে অধীর গোটা বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি জানিয়েছেন, প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবছে না তার দল। এটিকে বিশেষ ম্যাচ বলতেও রাজি নন তিনি, লক্ষ্য একটাই ‘জয়’। পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদেরও অভিন্ন লক্ষ্য। রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কারণে দীর্ঘদিন ক্রিকেট ভক্তরা পাক-ভারত দ্বিপক্ষীয় সিরিজ থেকে বঞ্চিত। এটি কেবল একটি ম্যাচ নয় গোটা ক্রিকেট বিশ্বই দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যাওয়া। গ্রেট ইমরান খানের মতে, ব্যাট-বলের লড়াই ছাপিয়ে যেখানে স্নায়ুর চাপটাই বড় হয়ে ওঠে। সম্প্রতি কাশ্মীর-উত্তেজনা যেন আগুনে ঘি ঢেলেছে। ভারত সরকার স্পষ্ট জানিয়েছে, পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নয়। এই অবস্থায় বিশ্বকাপসহ আইসিসির ইভেন্টগুলোতে দু’দেশের ক্রিকেট ঘিরে চলে তুমুল উন্মাদনা, ক্রিকেট ছাঁপিয়ে সেটি হয়ে ওঠে বাড়তি কিছু ...। ১৯৯২ বিশ্বকাপে প্রথম মুখোমুখি হয় দু’দল। সেবার ভারতের কাছে ৪৩ রানে হারলেও শেষ পর্যন্ত ট্রফি জয় করে ইতিহাস গড়েছিল ইমরানের পাকিস্তান। ১৯৯৬-এ ৩৯ রানে, ১৯৯৯ সালে ৪৭ রানে, ২০০৩ বিশ্বকাপে ৬ উইকেটের, ২০১১ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতের কাছে ২৯ রানে হারে শহীদ আফ্রিদির পাকিস্তান। সবশেষ ২০১৫ সালে মিসবাহর পাকিস্তানকে ৭৬ রানে হারিয়েছিল ধোনির ভারত। ওই ম্যাচে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি (১০৭)। সবশেষ গত বছর এশিয়া কাপে সরফরাজের পাকিস্তানকে ৯ উইকেটে হারায় কোহলির ভারত। জোড়া সেঞ্চুরি করেন রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। এছাড়া সেই ১৯৭৮ থেকে এ পর্যন্ত দু-দল মোট ১৩১ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে। যেখানে ভারতের ৫৪টির বিপরীতে পাকিদের জয় ৭৩ ম্যাচে, পরিত্যক্ত ৪, সাফল্য ৫৭.৪৮ ভাগ। তার মানে ওয়ানডেতে কোহলিদের তুলনায় এগিয়ে সরফরাজের দল। এই তথ্যে পাকিস্তানী ভক্তদের উল্লিসিত হওয়ার কিছু নেই- ১৯৯২ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ছয়বার মুখোমুখি হয়ে শত্রু দেশের কাছে প্রতিবারই হেরেছে পাকিস্তান! তবে তাদের জন্য প্রেরণা হতে পারে ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সাফল্য। ফেবারিট না হয়েও এই ইংল্যান্ডেই গ্র্যান্ড ফাইনালে এই ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল পাকিরা।

ইংল্যান্ডে চলমান ১২তম বিশ্বকাপের এ পর্যায়ে ৩ ম্যাচে ২ জয় ও ১ পরিত্যক্ত ম্যাচের পয়েন্ট ভাগাভাগি করে চার নম্বরে থাকা ভারতের পয়েন্ট ৫। ৪ খেলায় ১ জয়, ২ হার ও পরিত্যক্ত ১ ম্যাচের পয়েন্ট ভাগাভাগি করে আট নম্বরে পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৬ উইকেটে হারিয়ে মিশন শুরু করা কোহলির ভারত এরপর বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তুলে নেয় ৩৬ রানে জয়। তবে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে তাদের শেষ ম্যাচটা বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ১০৫ রানে অলআউট হয়ে লজ্জার হারের পর ফেবারিট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪ রানের জয়ে আলোচনায় উঠে আসে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তান। বৃষ্টিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। আর টনটনে আগের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৪১ রানে হারে সরফরাজের দল। লড়াইটা জমে উঠতে পারে ভারতীয় ব্যাটসম্যান এবং পাকিস্তানী পেসারদের মধ্যে। যেখানে মুখোমুখি রোহিত শর্মা-মোহাম্মদ আমির, বিরাট কোহলি-ওয়াহাব রিয়াজ, মহেন্দ্র সিং ধোনি-হাসান আলিরা। দুই শিবিরে আছেন ফখর জামান, ইমাম উল হক, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, জাসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি, যুবেন্দ্র চাহালের মতো তুখোড় সব পারফর্মার।

তবে উন্মদনায় জল ঢেলে দিতে পারে বেরসকি বৃষ্টি। এরই মধ্যে পরিত্যক্ত ম্যাচের রেকর্ড (৪টি) গড়েছে ইংল্যান্ড। ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ম্যানচেস্টারে আজ সারাদিনই আকাশ মেঘলা থাকবে। দিন গড়ানোর সঙ্গে বৃষ্টি নামার শঙ্কাও বাড়বে। বিবিসির আবহাওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সকাল ৬টা থেকে ৮টা পর্যন্ত বৃষ্টির শঙ্কা আছে। এরপর দুপুর ২টা পর্যন্ত বৃষ্টি নামার সম্ভাবনা খুব কম থাকলেও ৩টা থেকে আবারও বৃষ্টির ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।