২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাউফলে তিন যুব লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

বাউফলে তিন যুব লীগ  নেতাকে কুপিয়ে  জখম

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল ॥ পূর্ব বিরোধের জের ধরে কনকদিয়া বাজারে তিন যুব লীগ নেতাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। এদের মধ্যে দুই জনকে বাউফল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৮জুন) বেলা ১১টার সময় কনকদিয়া বাজার ব্রিজের দক্ষিন পাশে কনকদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি খসড়–ল আলম খান (৪৫), সহসভাপতি আনোয়ার মীর (৩৫) ও তার চাচাতো ভাই একই ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের সভাপতি সবুজ মীর (৩৭) দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন। এসময় স্থানীয় ফজলুল হকের ছেলে মেহেদী ও মুরাদ এসে তাদেরকে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। আহতদের মধ্যে আনোয়ার মীর ও সবুজ মীরকে বাউফল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনার পর বেলা সাড়ে ১১টার সময় ৮-১০টি মটর সাইকেল যোগে ২০-২৫ জন লোক ঘটনাস্থলে এসে বাচ্চুর’র সিরাজ মেডিকেল হল, জয়ন্ত পালের অন্তরা স্টুডিও ও সুকদেবের একটি মোবাইলে দোকানে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়। ওইসব দোকানের মালিকদের বেড় করে দিয়ে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়। এরা ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ শাহিন হাওলাদারের লোক বলে অভিযোগ রয়েছে। এর আগে সোমবার সকালে কনকদিয়া বাজারে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে একটি সালিস বৈঠক চলাকালে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এতে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ সাহিন হাওলাদার ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের মেম্বার উম্মে কুলসুম ও তার স্বামী জাহাঙ্গীর হোসেন ও রাসেদুল ইসলাম এজাজসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। গত দুই ধরে এই সহিংস ঘটনায় এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।