২৩ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেয়ারবাজারে লেনদেন বেড়েছে বীমা কোম্পানির প্রাধান্য

শেয়ারবাজারে লেনদেন বেড়েছে বীমা কোম্পানির প্রাধান্য

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবারে উত্থানে শেষ হয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন। এদিন ডিএসইর সব সূচক বেড়েছে। একই সঙ্গে বেড়েছে টাকার পরিমাণে লেনদেন। তবে লেনদেন অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। স্বাস্ব্য বীমা বাধ্যতামূলক করার পরিকল্পনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর এমন ঘোষণার পর বীমা কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবারের ধারাবাহিকতায় বুধবারও সূচকের উত্থানে লেনদেন শুরু হয়। এই দিনের তালিকাভুক্ত বীমা খাতের কোম্পানির প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ছিল বেশি। তাই লেনদেন ও দরবৃদ্ধির তালিকায় এই খাতের কোম্পানির প্রাধান্য ছিল। তবে অন্যান্য খাতে মিশ্রাবস্থা দেখা গেছে। দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৪১১ পয়েন্টে। অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩ ও ডিএসই-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ২৩৫ ও ১ হাজার ৮৯৭ পয়েন্টে। এদিন ডিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন ২৬ কোটি টাকা বেড়েছে। ৫৫৪ কোটি ৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫২৮ কোটি টাকার।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫১টি কোম্পানির মধ্যে ১২৪টির বা ৩৫ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৭৪টি বা ৫০ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টি বা ১৫ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ারের। এদিন কোম্পানিটির ২১ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ১৩ কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ১১ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে জেএমআই সিরিঞ্জ। ডিএসইর সার্বিক লেনদেনে উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে : নূরানী ডাইং, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, ড্রাগন সোয়েটার, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স এবং প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৫৬৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৬৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১০৯টির, কমেছে ১৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির দর। ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।