২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নড়িয়ায় সরকারী জমিতে মার্কেট নির্মাণ করে বরাদ্দ

নিজস্ব সংবাদদাতা, শরীয়তপুর, ১৯ জুন ॥ শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ঘড়িসার বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়নি। প্রশাসনের পক্ষ থেকে মালিক পক্ষকে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হলেও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এসব অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে না নেয়ায় ঘড়িসার বাজার ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। নড়িয়া উপজেলার ঘড়িসার বাজারের পূর্বপাশে ৩৪ শতাংশ সরকারী খাস জমি দখল করে তাতে মার্কেট নির্মাণ করে দোকানঘর ভাড়া দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহলের বিরুদ্ধে। উক্ত জমির মূল্য প্রায় ২০ কোটি টাকা বলে স্থানীয়রা জানান। স্থানীয়রা বলেন, নড়িয়া উপজেলা ভূমি অফিস ও স্থানীয় তহশিলদারের সঙ্গে যোগসাজশে গত ২ মাস ধরে অবৈধভাবে এ মার্কেট নির্মাণের কাজ চলমান থাকলেও রহস্যজনক কারণে এ বিষয়ে কোন প্রকার ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন।

ফলে বাজারের ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ঘড়িসার ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ মহব্বত উল্লাহ বলেন, আমরা সরকারী জমি থেকে তাদের অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছি এবং তারা একদিন সময় নিয়েছে। তবে সোমবার সকালে উক্ত অবৈধ স্থাপনার কিছু অংশ উচ্ছেদ করা হয়েছে এবং বাকিটা মালিক পক্ষ মঙ্গলবারের মধ্যে সরিয়ে নেবে বলে জানিয়েছিলেন নড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মু. রাশেদুজ্জামান। নাম প্রকাশ না করা শর্তে স্থানীয় বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, সরকারী জমি দিন দুপুরে দখল হয়ে গেলেও কোন প্রকার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। প্রশাসনিক লোকজন আসে কিন্তু কোন ব্যবস্থা না নিয়েই চলে যায়। প্রভাবশালী হওয়ায় সবাইকে ম্যানেজড করে প্রকাশ্যেই নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে দখলদাররা। সরকারী সম্পত্তি দখলের বিষয়ে জানতে চাইলে বাচ্চু প্রধানিয়া ও তার ভাইয়েরা নিজেদের মালিক দাবি করে বলেন, এটা আমাদের সম্পত্তি। আমাদের কাছে সব কাগজপত্র আছে। তবে ১৭ শতাংশের রেকর্ড সংশোধনী মামলা চলছে। সরকারী জমি থেকে এসব অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেবেন বলে জানান তারা।