২২ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিরো বিবির ৯৪ বছরেও জুটলনা বিধবা বা বয়স্ক ভাতা

বিরো বিবির ৯৪ বছরেও জুটলনা বিধবা বা বয়স্ক ভাতা

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ ॥ নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার একডালা ইউনিয়নের দুধকুন্ডি দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত আব্বাস আলী প্রামানিকের বিধবা স্ত্রী বিরো বিবির বয়স এখন ৯৪ বছর। তার আকুতি,আর কত বছর বয়স হলে তার ভাগ্যে বিধবা বা বয়স্ক ভাতা জুটবে? বয়সের ভারে নুয়ে পরা বিরো বিবির দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হলেও তাকে একটি কার্ড করে দেয়ার জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি বা কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি।

জানা গেছে, ভোটার আইডি কার্ড অনুযায়ী বয়স তার ৯৪ বছর। বয়সের ভারে নুয়ে পরেছে বিরো বিবি। প্রায় ৪০-৪৫ বছর আগে বিধবা হন তিনি। আর কত বয়স হলে বয়স্ক অথবা বিধবা ভাতার কার্ড জুটবে তার কপালে এমনি প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। সে অনেকের কাছে তার বয়স্কভাতার কার্ড অথবা বিধবা ভাতার একটি কার্ডের জন্য বিভিন্ন জায়গায় ধরনা দিলেও এখনো পর্যন্ত কার্ড করে দেয়ার জন্য কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি কেউ। তাই এখন বয়স্কভাতা অথবা বিধবাভাতার কার্ডের আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন বিরো বিবি।

বিরো বিবি জানান, কত মেম্বার কত চেয়ারম্যান এলো- গেল কেউ তাকিয়েও দেখে না। আশে পাশের অনেকেই আমার ছোট তারাও বয়স্কভাতা অথবা বিধবাভাতার কার্ড পাচ্ছে। কিছু‘ আমার কপালে এখনো বয়স্কভাতা অথবা বিধবাভাতার কার্ড জোটেনি। কে দিবে কার্ড করে কেউ খোঁজও নেয়না এমন কথাও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে একডালা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় মোম্বার আজিজার রহমান সাংবাদিকদের বলেন, বয়স্কভাতা ও বিধবাভাতার কার্ডের ভাগ আমাকে না দেয়ায় আমি তাকে কার্ড করে দিতে পারিনি।

এ বিয়য়ে একডালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল ইসলামের মন্তব্য জানার জন্য তার মুঠোফোনে ফোন করলে ফোনটি রিসিভ করে মিটিংয়ে আছি বলে ফোনটি কেটে দেন তিনি। এ ব্যাপারে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন, আমার কাছে আবেদন করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নির্বাচিত সংবাদ