২২ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজাপুরে পরোকিয়া টানে ঘর ছেড়েছে মা ও মেয়ে

রাজাপুরে পরোকিয়া টানে ঘর ছেড়েছে মা ও মেয়ে

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝালকাঠি ॥ ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার ভাতকাঠী গ্রামে বসবাসকারী মাকসুদা বেগম তার সন্তান ফেলে পরোকিয়ার টানে পালিয়েছে এবং একই উদ্দেশ্য নিয়ে মাকসুদার প্রথম স্বামীর ঔরসজাত বিবাহিত কন্যা বাবুল হাওলাদারের স্ত্রী মিম আক্তার মায়ের সাথে চালে গেছে। এই ঘটনায় মাকসুদা বেগমের স্বামী মো: খলিলুর রহমান ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফুসলিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এনে নালিশি অভিযোগ দায়ের করেছে। আদালতে ২০ জুন দায়ের করা অভিযোগটি তদন্ত করার জন্য রাজাপুর থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ দিয়েছে। অন্যদিকে বাবুল হাওলাদার রাজাপুর থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছে। পুলিশ এখন মা ও মেয়েকে খুজছে। গত ১৪ জুন সকালে মা ও মেয়ে পরোকিয়া প্রেমের টানে পালিয়েছে।

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার ভাতকাঠী গ্রামের খলিলুর রহমানের সাথে একই এলাকার হাতেম আলী হাওলাদারের কন্যা মাকসুদা বেগমের সাথে ১৬ বছর পূর্বে বিয়ে হয় এবং এটা মাকসুদা বেগমের ২য় বিয়ে। ২য় বিবাহিত জীবনে তার ১ কন্যা ও ২ পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। স্বামী খলিলুর রহমান শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য এবং অন্যদিকে ৪ মাস পূর্বে বাবুল হাওলাদারের সাথে মাকসুদার পূর্বের স্বামীর ঔরসজাত কন্যা মিম আক্তারের বিয়ে হয়। মিমের সাথে একই এলাকার বাপ্পি নামের এক যুবকের সাথে পরোকিয়া রয়েছে।

মাকসুদা বেগমের নলছিটি উপজেলার বারানী এলাকার মো: আক্কাস হাওলাদারের সাথে পরোকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে অভিযোগে দাবি করা হয়েছে।