১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শারীরিক শিক্ষা স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা ॥ নবম ও দশম শ্রেণি

  • সুধীর বরণ মাঝি;###;শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া শিক্ষক, হাইমচর কলেজ, হাইমচর-চাঁদপুর।;###;মোবাইল : ০১৭৯৪৭৭৭৫৩৫

(পূর্ব প্রকাশের পর)

তৃতীয় অধ্যায় ॥ সৃজনশীল প্রশ্ন

৪। অংকিতা যেখানে বসে পড়ালেখা করে সেখানে পর্যাপ্ত আলো বতাস নেই। এ কারণে অংকিতা কিছুক্ষণ পড়াশোনা করেই মানসিকভাবে ক্লান্ত হয়ে পড়ে এবং পড়াশোনার প্রতি অনিহা দেখা দেয়।অংকিতার মা বিষয়টি লক্ষ্য করে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করে দিলেন এবং বললেন,য়থেষ্ট আলো,বাতাস ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ মানসিক অবসাদ দূর করে।

ক) মানসিক অস্থিরতা দূরীকরণের উপায় কী?

খ) পরিমিত- আলোবাতাস ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ অংকিতার মানসিক অবসাদ দূরীকরণে কীভাবে ভূমিকা রাখে ব্যাখ্যা কর।

ক) উত্তর ঃ স্বাস্থ্য বলতে শারীরিক ও মানসিক সুস্থতাকে বুঝায়। মানসিক অসূস্থতার কারণে শিশু মনে মানসিক বিকৃতির সূত্রপাত হয়। ইহাই হলো মানসিক অস্থিরতা। মানসিক অস্থিরতা দূরিকরণের জন্য সুশিক্ষা, শিশুর স্বাস্থ্যসম্মত লালন-পালন, পরিচর্যা,উন্নত পারিবারিক পরিবেশ,পিতা-মাতা অভিভাবকের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি ইত্যাদির প্রয়োজন। ধৈর্যশীল আচরণ,শিশুবান্ধব পরিবেশ, পুষ্টি, আনন্দময় জীবনযাপনের জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছুর সরবরাহ ও ব্যবস্থাপনা থাকা প্রয়োজন। পিতামাতা ও অভিভাবকে এ বিষয়ে বিশেষভাবে সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।

খ) উত্তর ঃ পরিমিত- আলো, বাতাস ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ অংকিতার মানসিক অবসাদ দূরীকরণে যেভাবে ভূমিকা রাখে। উদ্দীপকের আলোকে অংকিতার মানসিক অবসাদের প্রাকৃতিগত কারণ বিশ্লেষন আমরা দেখতে পাই দৈহিক এবং মানসিক কারণ ছাড়াও কিছু পরিবেশগত কারণেঅংকিতার মানসিক অবসাদ আসে। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, খুব গরম, খুব ঠান্ডা বা গুমট আবহাওয়া, পরিমিত আলো,বাতাস ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ না থাকলে সামান্যতেই আবসাদ এসে ভর করে। পর্যাপ্ত আলো বাতাস, পরিচ্ছন্ন পরিবেশ, পরিষ্কারস্থানে কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে পারলে অংকিতা আনন্দের সাথে পড়ালেখা করবে এবং মানসিক অবসাদের প্রভাব মুক্ত থাকবে।