১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাদারীপুরে দেবরের কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ভাবীকে পিটিয়ে জখম

মাদারীপুরে দেবরের কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায়  ভাবীকে পিটিয়ে জখম

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর ॥ মাদারীপুরে মাদকাসক্ত দেবরের কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় স্কুল শিক্ষিকা ভাবীকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাজৈর উপজেলার পূর্ব মহেন্দ্রদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা নুরুন্নাহার (৪০)কে তার মাদকাসক্ত দেবর আনোয়ার বেপারী (৩৫) প্রায়ই কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তার কু প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় মাঝে মাঝেই স্কুল শিক্ষিকাকে মারপিট করত। মঙ্গলবার সকালে আনোয়ার কু-প্রস্তাব দিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে তাকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে এবং হাত ভেঙ্গে দেয়। আহতাবস্থায় শিক্ষিকাকে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, স্কুল শিক্ষিকা নুরুন্নাহারের স্বামী দেলোয়ার বেপারী (৪৫) ঢাকায় রঙের কাজ করেন। ছেলে ঢাকায় একটি কলেজে অনার্সে এবং মেয়ে ফরিদপুর একটি কলেজে অনার্সে পড়ে। শিক্ষিকা নুরুন্নাহার বাড়িতে একাই থাকেন। এই সুযোগে তার মাদকাসক্ত দেবর আনোয়ার মাঝে-মধ্যে কু-প্রস্তাব দিয়ে তার সাথে খারাপ ব্যবহার করত এবং মারপিট করত। মঙ্গলবার সকালে আনোয়ার ভাবীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে পিটিয়ে তার হাত ভেঙ্গে দেয়। আহত অবস্থায় পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা স্কুল শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করে। একই কারণে এক সপ্তাহ আগে তার বাম চোখে আঘাত করলে চোখ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

আহত শিক্ষিকা নুরুন্নাহার বলেন, ‘আমার স্বামী-সন্তান বাইরে থাকায় আমার দেবর আনোয়ার আমার সাথে অবৈধ সম্পর্ক করতে প্রায়ই চাপ দিত। আমি রাজী না হওয়ায় আমাকে মারপিট করত। আজ মঙ্গলবার সকালেও আমি তার প্রস্তাবে রাজী না হলে স্কুলে যাওয়ার পথে আমাকে পিটিয়ে আহত করে এবং হাত ভেঙ্গে দেয়। আমি এখন রাজৈর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

হরিদাসদী-মহেন্দ্রদী ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল মাতুব্বর জানান, আনোয়ার বেপারী নেশা করে এবং তার ভাবীর সাথে খারাপ আচরণ করে। আমরা বার বার সালিশ বৈঠক করলেও তার কোন পরিবর্তন হয় নাই।

রাজৈর থানার ওসি মোঃ শাহজাহান মিয়া জানান, স্কুল শিক্ষিকা নুরুন্নাহার হাসপাতাল থেকে ফোনে আমাকে জানিয়েছে। আমি পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। এ ব্যাপারে যথাযথা ব্যবস্থা নেয়া হবে।