১৯ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চোখ থাকবে আজ বোল্ট ও আমিরের ওপর

চোখ থাকবে আজ বোল্ট ও আমিরের ওপর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপে আজ গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্তান। সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে জিততে হবে সরফরাজ আহমেদদের। প্রতিপক্ষ সেখানে দুরন্ত-দুর্বার কিউইরা। বার্মিহ্যামের ম্যাচটিতে বিশেষ দৃষ্টি থাকবে দু’দলের দুই বাঁহাতি পেসার মোহাম্মদ আমির ও ট্রেন্ট বোল্টের ওপর। যে আমিরের বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছিল সংশয়। অনেক নাটকীয়তার পর সুযোগ পাওয়া পেসার এখন যৌথভাবে উইকেট সংখ্যায় সবার ওপরে। নিয়েছেন ১৫ উইকেট। বলতে গেলে বল হাতে পাকিস্তানকে একাই টানছেন। অন্যদিকে বোল্ট নিউজিল্যান্ড তো বটেই, আধুনিক ক্রিকেটেরই অন্যতম সেরা পেসার। যদিও বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে ৮ উইকেট নিয়েছেন, যেখানে সতীর্থ লোকি ফার্গুসনের শিকার আমিরের সমান ১৫টি। তবে বোল্টের মতো অভিজ্ঞ আর চতুর বোলার যে কোনদিন ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রুদ্ধশ্বাস জয়ের ম্যাচেই যেমন ৩০ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট।

অনেক নাটকের পর বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলে সুযোগ পান মোহাম্মদ আমির। বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পেয়ে রীতিমতো বাজিমাত করে যাচ্ছেন। রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ের ম্যাচে অসাধারণ বোলিং করে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ২ উইকেট শিকার করে ভূমিকা রাখেন মোহাম্মদ আমির। আর এই উইকেট শিকারের মধ্য দিয়ে ইংল্যান্ডের তরুণ তারকা পেসার জোফরা আর্চারকে ছাড়িয়ে আবারও শিকার সংখ্যায় শীর্ষস্থান দখল করেন তিনি। এবারের বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত ৫ ম্যাচ খেলে ৪৬ ওভার বোলিং করে ২১৯ রানের বিনিময়ে ১৫ উইকেট শিকার করেছেন আমির। তারচেয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলে ৫৪.৫ ওভারে ২৬৯ রান দিয়ে ১৫ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় পজিশনে আছেন জোফরা। ৬ ম্যাচে ৫৬ ওভারে ৩০৪ রান দিয়ে তিনে আছেন অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেসার মিসেল স্টার্ক (মঙ্গলবারের ম্যাচের আগ পর্যন্ত)। উইকেট শিকারের তালিকায় বাংলাদেশের তরুণ পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও আছেন সেরা দশে। তিনি ৪ ম্যাচে ৩৪ ওভারে ২৪৬ রান দিয়ে ৯ উইকেট শিকার করেন।

তবে বিশ্বকাপের ইতিহাসে ৩৯ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ ৭১ উইকেট শিকার করেছেন অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটার গ্লেন ম্যাকগ্রা। ৪০ ম্যাচ খেলে ৬৮ উইকেট শিকার করেছেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি স্পিনার মুত্তিয়া মুরলিধরন। বিশ্বকাপে ৩৮ ম্যাচ খেলে ৫৫ উইকেট শিকার করেছেন আমিরেরই পূর্বসূরি পাকিস্তানের সাবেক তারকা পেসার ওয়াসিম আকরাম। মাত্র ২৬ ম্যাচ খেলে ৫১ উইকেট শিকার করে বিশ্বকাপের চতুর্থ সেরা বোলারের তালিকায় আছেন শ্রীলঙ্কার বর্তমান তারকা পেসার লাসিথ মালিঙ্গা। পাকিস্তান গ্রেট ওয়াকার ইউনুস যেমন বলেছিলেন, ‘তরুণ বয়সেও আমির চতুর বোলার ছিল। মাঝে পাঁচ বছর (নিষেধাজ্ঞার সময়) তাকে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে না দেখা গেলেও এখনও সে পেস বোলারদের মধ্যে সেরা। আগামী দিনগুলোতে আর ভাল করবে এবং বিশ্বকাপে ইংলিশ কন্ডিশনে সে দলের সাফল্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’ সেটিই যেন সত্যি হচ্ছে। অথচ বিশ্বকাপে আমিরের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে কতই না নাটক হয়েছিল। অফফর্ম ও অসুস্থতার অজুহাতে প্রথমে দলে ছিলেন না। ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার মুখে শেষ মুহূর্তে সুযোগ পেয়েছেন। বল হাতে সেই তিনিই এখন দলের বড় ত্রাতা।