১৯ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রিয়াদের ইনজুরি গুরুতর নয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আফগানিস্তানের বিপক্ষে সোমবার ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ দল। সেই ম্যাচে ৬২ রানে জিতে চলতি বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল রেসে টিকে আছে টাইগাররা। তবে ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সময় কাফ মাসলে টান লাগে ‘ফিনিশার’ খ্যাত মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। পরে আর পুরো সময়ই ফিল্ডিং করেননি তিনি। শঙ্কায় পড়েছিল বাংলাদেশ দল। কারণ এরপর দুই বড় পরাশক্তি ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। অবশ্য অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ম্যাচশেষে দাবি করেছিলেন, পরের ম্যাচের আগে ৭ দিন সময়ে সেরে উঠবেন রিয়াদ। এরপরও শঙ্কা ছিল তার ইনজুরি কতটা মারাত্মক। মঙ্গলবার স্ক্যান রিপোর্ট দেখে বাংলাদেশ দলের ফিজিও থিহান চন্দ্রমোহন নিশ্চিত করেছেন ইনজুরিটা তেমন গুরুতর নয়। নিচু মাত্রায় টিয়ার আছে যা কয়েকদিনের বিশ্রামেই ঠিক হয়ে যাওয়ার কথা। তবে চন্দ্রমোহন জানিয়েছেন রিয়াদের সেরে ওঠার ওপর নির্ভর করছে তার পরবর্তী ম্যাচে খেলার বিষয়টি।

সাউদাম্পটনের রোজ বোলে ছিল ঘূর্ণি উইকেট যা চলতি বিশ্বকাপে একেবারেই বেমানান। সেই ম্যাচে ৩৮ বলে ২৭ রানের একটি কার্যকর ইনিংস খেলে ৮৩ রান করা মুশফিককে ভাল সঙ্গ দিয়েছিলেন রিয়াদ। কিন্তু কাফ মাসলে টান লাগায় খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে রান নিতে দেখা গেছে তাকে এবং মাঝে ফিজিও’র শুশ্রƒষাও নিয়েছেন তিনি। আউট হয়ে যাওয়ার পর তাকে আর মাঠেই দেখা যায়নি। এমনকি ফিল্ডিংয়ের পুরোটা সময় তিনি মাঠে অনুপস্থিত থাকায় দুঃশ্চিন্তার কালো মেঘ জমেছিল। তবে মঙ্গলবার টাইগার দলের ফিজিও চন্দ্রমোহন বলেন, ‘ওর ইনজুরিটি গ্রেড ওয়ান ধরনের। আগামী কয়েকদিন বিশেষ পর্যবেক্ষণে থাকবে সে। বাংলাদেশের পরের ম্যাচে তার খেলা নির্ভর করছে চোট সেরে ওঠার ওপর।’ এ বিশ্বকাপে তেমন ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি রিয়াদ। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দলের দুর্দান্ত জয়ে তার ভূমিকা ছিল ৩৩ বলে ৪৬ রান এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫০ বলে ৬৯ রান। বিশ্বকাপের আগে থেকেই ইনজুরি সমস্যায় আছেন রিয়াদ। কার্যকর অফস্পিন করতে সক্ষম হলেও তাই চলতি বিশ্বকাপে তিনি বোলিং করতে পারছেন না। বোলিংয়ের সময় কাঁধে টান লাগে তার। এখন এই ইনজুরিটির কারণে পরের ম্যাচে খেলা নিয়ে তাই শঙ্কার মেঘটা থেকেই গেল।