১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এসএসসির পর ॥ ডিপ্লোমা ইন ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং

  • নাঈম খান

ইলেক্ট্রিক্যাল সেক্টরে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর সংখ্যা, বিদ্যুত প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদের মানসম্মত সংখ্যা বাড়িয়ে বিদ্যুত খাতের উন্নয়নের মাধ্যমে জাতীয় উন্নয়ন ও এ খাতে বিশ্বয়নের মিছিলে শামিল হওয়ার প্রয়াসে ডিপ্লোমা-ইন-ইলেক্ট্রিক্যাল-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সটি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের (বাকাশিবো) অধীনে পরিচালিত হয়ে আসছে। ডিপ্লোমা-ইন-ইলেক্ট্রিক্যাল-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের শিক্ষার্থীরা দৈনন্দিন জীবনে বিদ্যুতের নানামুখী ব্যবহার ও পরিমাপ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা পায়। এছাড়া বিদ্যুত বিল তৈরি, হাউস ওয়্যারিং, এস্টিমেটিং, ইলেক্ট্রিক্যাল এনার্জি জেনারেট, ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা ও প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। এছাড়া বাংলাদেশের বিদ্যুতবিধি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা দেয়া হয়। তাত্ত্বিক ক্লাসের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ব্যবহারিক ক্লাস গ্রহণ করা হয়, যাতে শিক্ষার্থীরা কর্মমুখী জ্ঞান লাভ ও দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে পারে।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হয়, যাতে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার সক্ষমতা অর্জন করতে পারে। দেশে বাস্তবমুখী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অভাবই এক্ষেত্রে প্রধান অন্তরায় হয়ে দেখা দিয়েছে। এ অভাব পূরণ করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে দেশের অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (আইএসটি) অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একজন ডিপোমা প্রকৌশলীই পারে আত্মকর্মসংস্থানের সৃষ্টি করে, বেকারত্ব দূর করতে। চাকরির পাশাপাশি সে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিংসহ অন্যান্য উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত ও প্রশিক্ষিত হতে পারে। চার বছর মেয়াদী কোর্সটি সফলভাবে সম্পন্ন করার পর বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড সনদপত্র প্রদান করবে। সেই সনদপত্রের মাধ্যমে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।

দেশ-বিদেশে বিদ্যমান সরকারী-বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে বিএসসি ইন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী অর্জনের যোগ্যতা অর্জন। চাকরির পাশাপাশি সান্ধ্যকালীন বিএসসি ইন ইঞ্জিনিয়ারিং অর্জনের সুযোগ। দেশে ডিপোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং করার জন্য সেরা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অন্যতম ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (আইএসটি)-তে চার বছর মেয়াদী ডিপোমা কোর্সে ভর্তি প্রক্রিয়া চলছে। ভর্তি হওয়ার ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় যে কোন বিভাগ থেকে সিজিপিএ ২.০। এইচএসসি (বিজ্ঞান) উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা সরাসরি তৃতীয় পর্বে ভর্তি হওয়ার সুযোগ রয়েছে। সরকারীভাবে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় ১০০ শতাংশ মেয়ে এবং প্রায় ৬০ শতাংশ ছেলেদের প্রতি সেমিস্টারে ৪৮০০ টাকা বৃত্তি প্রদান। মেয়েদের জন্য টিউশন ফি ২০ ভাগ ছাড়। প্রতি সেমিস্টারে রেজাল্টের ওপর ৫০ ভাগ পর্যন্ত টিউশন ফি ছাড়। এসএসসি জিপিএর ওপর ভর্তি ফিতে ৭৫ ভাগ পর্যন্ত ছাড়। মেয়েদের জন্য আবাসিক হোস্টেলের সুবিধা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত লাইব্রেরি ও ল্যাবসমূহ, ফ্রি ওয়াইফাই ক্যাম্পাস।

যোগাযোগ : হাউস # ৫৪, রোড # ১৫-এ (পুরাতন-২৬, শংকর বাসস্ট্যান্ডের র্পূবদিকে) ধানমন্ডি , ঢাকা ১২০৯। ফোন: ০১৭২৬৯৩৭৯১০। www.istdiploma.edu.bd