১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

২৪ গরু পাচারকারীকে নীলডাউন

২৪ গরু পাচারকারীকে নীলডাউন

অনলাইন ডেস্ক ॥ ভারতে গরু পাচার বা গরুর মাংস বহনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে একের পর এক হত্যা, নির্যাতনের ঘটনা ঘটেই চলেছে। সম্প্রতি গরু পাচারকারী সন্দেহে ২৪ জনকে রাস্তায় ফেলে নীলডাউন করতে বাধ্য করা হয়েছে।

রোববার এই ঘটনা ঘটেছে মধ্য প্রদেশে। সেখান থেকে মহারাষ্ট্রের একটি পশু হাটে নেয়ার জন্য বেশ কিছু গরু পাচারের চেষ্টা করা হচ্ছিল এমন সন্দেহে ২৪ জনকে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

শুধু তাই নয়। তাদের সবাইকে বেধে নীলডাউনের পাশাপাশি 'গাউ মাতা কি জায়' বলেও স্লোগান দিতে বাধ্য করেছে গোরক্ষক কমিটি। মধ্যপ্রদেশের খানদোয়া জেলার ওই ঘটনা মোবাইলে ধারণ করা হয়।

সেখানে দেখা যায় একদল লোককে এক সঙ্গে বেধে রাখা হয়েছে। তারা সবাই রাস্তায় বসে আছে আর তাদের নীলডাউনে বাধ্য করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তাদের 'গাউ মাতা কি জায়' স্লোগান দিতেও বাধ্য করছেন গোরক্ষক কমিটির সদস্যরা।

গোরক্ষক দলের অভিযোগ, সাভালিকেরা গ্রাম থেকে ২৪ জন পাচারকারী ২০টি গবাদি পশু নিয়ে যাচ্ছিলেন পশু হাটে বিক্রির উদ্দেশ্যে। মাঝপথেই সবাই ধরা পড়ে। এরপর তাদের বেধে রাখা হয়।

জেলার পুলিশ কর্মকর্তা শিবদয়াল সিং বলেন, যাদের গবাদি পশু পাচারকারী হিসেবে ধরা হয়েছে তাদের কাছে যে মালবাহী গাড়ি এবং গবাদি পশু ছিল তারা সেগুলোর মালিকানার দাবি জানালেও এর প্রমাণ দিতে পারেননি।

তিনি আরও বলেন, ২৪ জনের ওই দলটি কোনও বৈধ কাগজপত্রও দেখাতে পারেনি। ফলে, যানবাহন এবং গবাদি পশুগুলো জব্দ করেছে মধ্যপ্রদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী। তবে এ ধরনের অত্যাচার চালানোর বিরুদ্ধেও কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি প্রশাসন। তবে এ বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। ২৪ জনের এই দলটি এসেছে মধ্যপ্রদেশের খন্দওয়া, সেহোর, দেওয়াস ও হার্দা জেলা থেকে। এদের মধ্যে ছয়জনই মুসলিম।