২৩ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বকাপে রোহিত শর্মার বিশ্বরেকর্ড

  • মোঃ রাশেদুল হক

প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপের এক আসরে পাঁচটি সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েছেন ভারতের রোহিত শর্মা। তিনি ছাড়িয়ে গেছেন শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারার কীর্তিকে। বিশ্বকাপের গেল (২০১৫) আসরে লঙ্কান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হাঁকিয়েছিলেন টানা চারটি সেঞ্চুরি। ৬ জুলাই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই লিডসের হেডিংলিতে চলমান আসরের পাঁচ নম্বর সেঞ্চুরির দেখা পান রোহিত (সকল পরিসংখ্যান মঙ্গলবার সেমির আগেহ পর্যন্ত)। এটি তার টানা তৃতীয় শতরানের ইনিংস। শেষ দুই ম্যাচে ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষেও তিন অঙ্ক ছুঁয়েছিলেন এই ওপেনিং ব্যাটসম্যান। তার আগে তিনি সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। গ্রুপ পর্বে শেষ ম্যাচে লঙ্কানদের ছুঁড়ে দেওয়া ২৬৫ রানের লক্ষ্য তাড়ায় বরাবরের মতো ভারতের ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নামেন রোহিত। হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন ৪৮ বলে। পরের পঞ্চাশ ছুঁয়ে ফেলেন আরও দ্রুত। ৯৩ বলে তুলে নেন এবারের আসরে নিজের পঞ্চম সেঞ্চুরি।

ইতিহাস গড়ার পর অবশ্য উইকেটে টেকেননি রোহিত। মুখোমুখি হওয়া পরের বলেই আউট হন তিনি। এই ইনিংস খেলার পথে চলমান বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ও সবমিলিয়ে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এক আসরে ছয়শ’ রান পেরিয়ে যাওয়ার কৃতিত্বও দেখান রোহিত। ৮ ইনিংসে ৯২.৪২ গড়ে তার রান ৬৪৭। আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি। সাঙ্গাকারাকে টপকে যাওয়ার পাশাপাশি আরেকটি রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেন রোহিত। নাম লেখান তার স্বদেশী কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের পাশে। ক্যারিয়ারে বিশ্বকাপে দুজনেরই সেঞ্চুরির সংখ্যা এখন সর্বোচ্চ ও সমান ছয়টি করে। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপেও একটি শতরানের ইনিংস খেলেছিলেন রোহিত। ইতোমধ্যেই রোহিত চলতি বিশ্বকাপে অনেক রেকর্ড গড়েছেন। বিশ্বকাপে সর্বাধিক ৬ সেঞ্চুরির রেকর্ডে এখন রোহিত-শচীন এক কাতারে। গতবার নিজের প্রথম বিশ্বকাপে ১টি আর এ বিশ্বকাপে ৫টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি। এবার এক আসরে সর্বাধিক রানের দিক থেকেও ভারতীয় কিংবদন্তিকে পেছনে ফেলার সুযোগ তার। শচীন ২০০৩ বিশ্বকাপে ৬৭৩ রান করেছিলেন ১১ ম্যাচ খেলে।

এবার রোহিত ৫ সেঞ্চুরিতে ৮ ম্যাচেই করেছেন ৬৪৭ রান। এক বিশ্বকাপে এর আগে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারার ৪টি সেঞ্চুরি ছিল। ৫ শতকে তাকে পেছনে ফেলেছেন ৩২ বছর বয়সী রোহিত। ভারতের এবার বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। সেই ম্যাচেই অপরাজিত ১২২ রানের ইনিংস উপহার দেন রোহিত। ভারতীয় দলের টপঅর্ডার নিয়ে দুঃশ্চিন্তাটা শেষ হয়ে যায় তখনই। পরের ম্যাচে ৫৭ রানের ইনিংস খেলেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। তার উপযুক্ত সঙ্গী ছিলেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু ইনজুরিতে এ বাঁহাতি ওপেনার ছিটকে যাওয়ার পর ভারতের টপঅর্ডারে একমাত্র আশা-ভরসা হয়ে দাঁড়ান রোহিত। কারণ, সাম্প্রতিক সময়ে লোকেশ রাহুলের ফর্মটা তেমন সুবিধাজনক ছিল না। এ কারণে লোকেশ এমনকি চার নম্বরেও ব্যাট করতে নেমেছিল। ধাওয়ানের অনুপস্থিতিতে লোকেশই সঙ্গী হয়ে যান রোহিতের। সেই লোকেশ একপ্রান্তে থেকে ভালভাবেই সঙ্গ দিয়েছেন। তিনি রোহিতকে দেখেছেন একে একে বড় কিছু ইনিংস খেলতে।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে ¯œায়ুচাপের ম্যাচে রোহিত ১৪০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে আগেই নিজের দলকে ভারমুক্ত করে দিয়েছেন। এবার বিশ্বকাপের দুই তলানির দল আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তারাই শুধু সফল হয়েছে রোহিতকে আগেভাগে সাজঘরে ফেরাতে। আফগানদের বিপক্ষে ১ আর ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে মাত্র ১৮ রানেই সাজঘরে ফিরেছেন রোহিত। এ দুটি ম্যাচের পর আর রোহিত হতাশ করেননি। টানা তিনটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০২, বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০৪ এবং সর্বশেষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০৩ রানের ইনিংস উপহার দিয়েছেন। টপ অর্ডারে নিজের পরিবর্তে স্পট লাইটটা ফর্মের তুঙ্গে থাকা রোহিত শর্মা নিয়ে গেছেন বলে মন্তব্য করেছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কোহলি এ পর্যন্ত করেছেন ৫টি হাফ সেঞ্চুরি। তবে ওয়ানডে ও টেস্ট ক্রিকেটের শীর্ষ এই ব্যাটসম্যান এখন পর্যন্ত কোন সেঞ্চুরির দেখা পাননি। কোহলি বলেন, ‘এই বিশ্বকাপে আমাকে ভিন্নধর্মী ভূমিকা পালন করতে হয়েছে। একজন অধিনায়ক হিসেবে দল আমার কাছ থেকে যে ভূমিকা চাইবে আমি সেটার জন্য প্রস্তুত। এটা খুবই ভাল যে রোহিত এত ধারাবাহিকভাবে পারফরমেন্স করে আসছে। ইনিংসের শেষ দিকে হার্দিক পাি য়া, কেদার যাদব, এমএস ধোনি কিংবা ঋষভ পন্থের মতো খেলোয়াড়রা নিজেদের ভূমিকা পালন করে আসছেন।’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালের আগে রোহিত পর পর তিন সেঞ্চুরি এবং লোকেশ রাহুলের সঙ্গে দুটি ১৮০ প্লাস পার্টনারশিপ গড়েন। সাধারণ ব্যাটিং অর্ডারের তিন নম্বরে ব্যাটিং করেন কোহলি। গ্রুপ পর্বে গত শনিবার নিজেদের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে অপরাজিত ৩৪ রান করা অধিনায়ক বলেন, অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করতে হওয়ায় তিনি খুশি। কোহলি বলেন, ‘আমি অত্যন্ত খুশি যে এক প্রান্ত আমি ধরে রাখছি এবং অন্য প্রান্তে দলের প্রয়োজনে অন্যরা ১৫০, ১৬০ কিংবা ২০০ স্ট্রাইক রেটে ব্যাটিং করে নিজেদের প্রকাশ করছে। জানি শেষ দিকে আমি টিকে থাকতে পারি। আমার আশা রোহিত আরও দুটি সেঞ্চুরি করুক, যাতে আমরা আরও দুটি ম্যাচ জিততে পারি। কেননা এটা অসাধারণ একটা অর্জন। সব কৃতিত্ব তার এবং আমার মতে এই মুহূর্তে সে বিশ্ব সেরা ওয়ানডে ব্যাটসম্যান।’

বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে আইপিএলে ফর্ম নিয়ে সংগ্রাম করা রোহিত টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১২৭ রানের ইনিংস খেলে দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন। এরপর তিনি আর পেছনে ফিরে তাকাননি। আজ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে খেলা হওয়া ম্যাচেও তিনি ১০৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। এই ইনিংসের সঙ্গেই তিনি নিজের নামে বেশ কিছু বড় রেকর্ড যোগ করেছেন।

সেই রেকর্ডের ব্যাপারে আরও কিছু তথ্য জেনে নেয়া যাকÑ

১. রোহিত শর্মা এই বিশ্বকাপে ৬৪৭ রান হয়ে গেছে আর টুর্নামেন্টে তিনি সবচেয়ে বেশি রান করা ব্যাটসম্যানও হয়ে গেছেন।

২. এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি করার রেকর্ডও রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত হয়ে গেছে। তার নামে ৫টি সেঞ্চুরি যোগ হয়েছে আর এর আগে ৪টি সেঞ্চুরি করা এই রেকর্ড কুমার সাঙ্গাকারার নামে ছিল।

৩. কোন একটি ওয়ানডে সিরিজ/ টুর্নামেন্টে ৫টি সেঞ্চুরি করা তিনি প্রথম ব্যাটসম্যান হয়ে গেছেন। এর আগে কোন ব্যাটসম্যান ওয়ানডে সিরিজ বা টুর্নামেন্টে ৫টি সেঞ্চুরি করেননি।

৪. বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি করার ব্যাপারে রোহিত শচীন তেন্ডুলকরকে ছুঁয়ে ফেলেছেন। শচীনের নামে ৪৪টি ইনিংসে ৬টি সেঞ্চুরি রয়েছে অন্যদিকে রোহিত মাত্র ১৬টি ইনিংসে এই কৃতিত্ব করেন।

৫. বিশ্বকাপের ইতিহাসে কমসে কম ১৫টি ইনিংসে খেলা খেলোয়াড়দের মধ্যে রোহিতের গড় সবচেয়ে ভাল। তিনি ৬৯.৭৮ গড়ে রান করেছেন অন্যদিকে এবি ডেভিলিয়র্স ৬৩.৫২ গড়ে রান করেছিলেন।

৬. বিশ্বকাপের ইতিহাসে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে তিনটি সেঞ্চুরি করা প্রথম ব্যাটসম্যানও হয়ে গিয়েছেন রোহিত শর্মা। তিনি এই টুর্নামেন্টে দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড আর আজ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করলেন।

৭. চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ২০১৭র পর ওয়ানডে ক্রিকেটে রোহিত শর্মার নামে ১৭টি সেঞ্চুরি হয়ে গেছে। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে বিরাট কোহলি (১৫) রয়েছেন।

৮. বিশ্বকাপ ২০১৫ থেকে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি করার বিষয়ে রোহিত শর্মা বিরাট কোহলিকে পেছনে ফেলে দিয়েছেন। এই ম্যাচের আগে দু’জনের নামে ১৯টি সেঞ্চুরি ছিল আর এখন ২০টি সেঞ্চুরি করে রোহিত আগে এগিয়ে গেছেন।

৯. রোহিত শর্মা ওয়ানডে ক্রিকেটে লাগাতার তিনটি ম্যাচে তিনটি সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন। বিরাট কোহলির পর দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে তিনি এটা করেছেন।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া