২০ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘গ্রীণ ও ক্লিন হবিগঞ্জ শহর’ উপহার দিতে ডিসি মুরাদের অঙ্গীকার

‘গ্রীণ ও ক্লিন হবিগঞ্জ শহর’ উপহার দিতে ডিসি মুরাদের অঙ্গীকার

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ ॥ নাগরিকদের প্রত্যাশা বাস্তবায়নে স্থায়ী ভাবে জলাবদ্ধতা নিরসন, ব্যাটারী চালিত টমটম বন্ধ, সড়কপথ প্রশস্থকরণ, শিশু পার্ক প্রতিষ্ঠা ও ভূমি খেকোদের কবল থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং তৎসংশ্লিস্ট ভুমি উদ্ধার সহ একটি পূর্ণাঙ্গ ‘গ্রীণ ও ক্লিন হবিগঞ্জ শহর’ উপহার দেয়ার অঙ্গীকার করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ। এ লক্ষ্যে তিনি একটি মাষ্টার প্ল্যানও তুলে ধরার পাশাপাশি তা বাস্তবায়নে স্ব স্ব কমিটি গঠনের ঘোষণাও দেন।। নানা পেশার স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গ ও প্রশাসনের সকল দপ্তরের কর্মকর্তাদের নিয়ে আজ বুধবার দিনব্যাপী তার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত এক জরুরী পরামর্শমূলক সভায় তিনি এই অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। এসময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক উপ সচিব মোঃ নুরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক-রাজস্ব) তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া, বিজ্ঞ এডিএম মোঃ শরিফুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি-শিক্ষা) মর্জিনা বেগম, হবিগঞ্জ পৌরসভার নব-নির্বাচিত পৌর মেয়র মিজানুর রহমান মিজান, সাবেক চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, সদর ইউএনও সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, দৈনিক খোয়াই সম্পাদক শামীম আহসান, বাপা নেতা তোফাজ্জল সোহেল ও দৈনিক জনকন্ঠের সংবাদদাতা রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, ব্যাকস সভাপতি সামছুল হুদা সহ বিভিন্ন এনজিও’র প্রতিনিধি এবং পুলিশ, র্যাব, আনসার ও ভিডিপি সহ সরকারী-বেসরকারী পর্যায়ের নানা দপ্তরের কর্মকর্তাগণ। সভায় ‘গ্রীণ ও ক্লিন হবিগঞ্জ শহর’ উপহার দিতে আমন্ত্রিত অতিথিদের নিকট থেকে সুনিদিষ্ট পরামর্শমূলক প্রস্তাব চাওয়া হলে অনেকেই নিজস্ব মতামত তুলে ধরেন এবং জেলা প্রশাসকের অঙ্গীকার বাস্তবায়নে সকল ধরনের ত্যাগ স্বীকার সহ সহযোগীতার আশ্বাস দেন সকলেই। সভায় তাৎক্ষণিক কিছু সমস্যার সমাধানের নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক।