২০ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেমিতে সুপার ফ্লপ কোহলি

সেমিতে সুপার ফ্লপ কোহলি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ হঠাৎ ধ্বস ভারতের! পুরো টুর্নামেন্টেই দাপট দেখিয়ে গ্রুপ পর্বের বাধা অতিক্রম করা বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইন আপ শেষ চারেই অচেনা! নিউজিল্যান্ডের বোলাররা চূর্ণ-বিচূর্ণ করে দেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দাপট। মাত্র ১ রান করে আউট হয়ে যান ভারতের প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল, রোহিত শর্মা এমনকি খোদ অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। এ যাবৎকালের ইতিহাসে একদিনের ক্রিকেটে যা বিরল!

তবে লোকেশ রাহুল আর রোহিত শর্মার কথা ভিন্ন। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১ রান করে সাজঘরে ফিরে যাওয়ার ফলে তুমুল সমালোচনার মুখে বিরাট কোহলির পারফর্মেন্স। বিশেষ করে তার বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের পারফর্মেন্স।

এ কথা বললে মোটেও অতুক্তি লাগবে না যে, গত কয়েক বছর ধরে আগুনে ফর্মে কোহলি। হয়ে ওঠেন ব্যাটসম্যানদের কিং! এই সময়ে ২২ গজে একের পর এক রেকর্ড গড়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য এক উচ্চতায়। যে কারণেই কোহলিকে বলা হচ্ছে সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। ব্যাট হাতে কিংবা অধিনায়কের ভূমিকায়; অনন্য এক নাম বিরাট কোহলি। তার পারফর্মেন্সে মুগ্ধ হয়ে কিংবদন্তি ভিভ রিচার্ডসও স্বীকার করে নিতে বাধ্য হন যে, ‘আমি কখনোই কোহলির মতো এত ভালো ছিলাম না।’ আর সেই কোহলিই সেমিফাইনালে এতো বাজে! অবাক করার মতোই কা-। এই পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে যে কোন কোহলি-ভক্তেরই মন খারাপ হয়ে যাবে নিশ্চিত।

হ্যাঁ, জীবনে খেলা তিনটি বিশ্বকাপের তিনটি সেমিফাইনাল ম্যাচের সবকটিতেই ব্যর্থ বিরাট কোহলি। বিশ্ব মঞ্চের শেষ চারের কোন ম্যাচেই নিজেকে প্রমাণ করতে পারেননি তিনি। ২০০৮ সালে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক ঘটা বিরাট কোহলি প্রথম বিশ্বকাপ খেলেন ২০১১ সালে। মোহালিতে সেই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হয় ভারত। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাত্র ৯ রানেই আউট হয়ে যান বিরাট কোহলি। ওয়াহাব রিয়াজের বলে। যদিওবা সেই বিশ্বকাপের শিরোপা শেষ পর্যন্ত ভারতই জিতেছিল। এরপর ২০১৫ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতের প্রতিপক্ষ ছিল অস্ট্রেলিয়া। সিডনির সেই ম্যাচেও কোহলি নিঃষ্প্রভ। মিচেল জনসনের বলে ১ রানেই আউট হয়ে যান বিরাট কোহলি। সেই ম্যাচে হেরে বিশ্বকাপ থেকেও ছিটকে যায় টিম ইন্ডিয়া।

দীর্ঘ চার বছর পর বুধবার রিজার্ভডেতে আরও একটি সেমিফাইনাল খেলতে নামে ভারত। শেষ চারের প্রতিপক্ষ এবার নিউজিল্যান্ড। ব্ল্যাক ক্যাপসদের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতেই সাজঘরে ফিরে যান দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রোহিত শর্মা। পুরো টুর্নামেন্টে ব্যাট হাতে রাজত্ব করা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বড় একটা ধাক্কা খায় ভারত। এরপর দলের মান রক্ষার ভার নিয়েই মাঠে নামেন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলি। কিন্তু মান রাখতে আর পারলেন কই? ম্যানচেস্টারে ট্রেন্ট বোল্টের বলে এলবির শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন মাত্র ১ রান করে। অবাক করা ব্যাপার হলো আগের দুই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের মতো এবারও সেই বামহাতি পেসারের বলেই আউট হন বর্তমান বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। এর ফলে বিশ্বকাপের তিন সেমিফাইনালের তিন ম্যাচে কোহলির রানসংখ্যা দাঁড়াল মাত্র ১১। যার গড় ৩.৬৭।

বিরাট কোহলির এই ব্যর্থতার প্রভাব পড়ল ভারতের উপরও। নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল থেকেই যে বিদায় নিতে হলো তার দলকে। সেইসঙ্গে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালেই ভেঙে চুরমার এশিয়ার ক্রিকেট-প্রেমীদের শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। কেননা, এশিয়ার চার দলের মধ্যে একমাত্র ভারতই এবার শেষ চারের টিকিট কেটেছিল। টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় বাকি তিনটি দল বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান।

অন্যদিকে, টানা দুইবার বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করল নিউজিল্যান্ড। এবার কী তাহলে শিরোপা-খরা ঘুচানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে কেন উইলিয়ামসনের দল? ক্রিকেটপ্রেমীদের অপেক্ষা এখন সেটাই দেখার।

নির্বাচিত সংবাদ