২০ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরিশালে গৃহহীনদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে ‘জমি আছে ঘর নেই প্রকল্প’

বরিশালে গৃহহীনদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে ‘জমি আছে ঘর নেই প্রকল্প’

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ “জমি আছে ঘর নেই” আশ্রয়ন প্রকল্প ফেইজ-২ এর আওতায় জেলার গৌরনদী উপজেলার ২৪০টি গৃহহীন পরিবারকে বসতঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। তাই বর্ষা মৌসুমের আগেই অর্ধপাকা ঘর পেয়ে মহাখুশি দীর্ঘদিন থেকে ঝুঁপড়ি ঘর কিংবা টঙ ঘরে বসবাস করা ওইসব পরিবারের বাসিন্দারা।

উপজেলার বিল্বগ্রাম এলাকার সাবেক গৃহহীন বাসিন্দা ফারুক সরদার ও প্রতিবন্ধী মনিয়া আক্তার জানান, এতোদিন তাদের মাথা গোজার কোন ঠাঁই ছিলোনা। অন্যের বাড়ির রান্না ঘরেই সন্তানদের নিয়ে তাদের বসবাস করতে হতো। আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে বাসস্থান পাওয়ায় তারা প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করেন। একইভাবে শরিফাবাদ গ্রামের সাবেক ভিক্ষুক রাহেলা বেগম, সালাম ফকির ও কদভানু বেগম জানান, এতোদিন জরাজীর্ণ ঘুপরি ঘরেই তারা বসবাস করে আসছিলেন। ঘর উত্তোলণ করার মতো তাদের অর্থ ছিলোনা। বিনামূল্যের ঘর পেয়ে এখন তাদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।

বিনামূল্যে রং করে দিচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ ॥ উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু জানান, “জমি আছে ঘর নেই” প্রকল্পের আওতায় তার ইউনিয়নে মোট ৩৫টি গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। বসতঘরগুলো যাতে দীর্ঘস্থায়ী হয় এজন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর অনুপ্রেরনায় ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে ঘরগুলোকে রং করে দেয়ার কাজ চলমান রয়েছে।

গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন জানান, ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে গৌরনদী উপজেলায় মোট ১৩০টি গৃহহীন পরিবারকে বসতঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে ১১০টি ঘর নির্মাণের কাজ প্রায় শেষপর্যায়ে রয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ