১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কয়েক মাসের মধ্যে সারা বিশ্ব দেখবে বিটিভি

 কয়েক মাসের মধ্যে সারা বিশ্ব দেখবে বিটিভি

অনলাইন রিপোর্টার ॥ কয়েক সপ্তহের মধ্যে সারা ভারতে বিটিভি দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আর কয়েক মাসের মধ্যে সারা বিশ্বে বিটিভি দেখা যাবে বলেও তিনি জানান। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট (সংশোধন) বিল ২০১৯ উপর সংসদ সদস্যদের আলোচনার পর তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ একথা জানান।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, এখনও সারা দেশের বেশিরভাগ মানুষ বাংলাদেশ টেলিভিশনই দেখেন। ভারতের সঙ্গে আমরা চুক্তি করেছি কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সারা ভারতে বিটিভি দেখা যাবে। গত কয়েকবছর ভারতে বিটিভি দেখা যেতো না। এই চুক্তির পর যেভাবে ভারতে সেদেশের সরকারি টেলিভিশনগুলো সারা দেশে দেখা যায় সেভাবে বিটিভিও দেখা যাবে। আর মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে কয়েক মাসের মধ্যে সারা বিশ্বে বিটিভি দেখা যাবে।

তিনি আরও বলেন, বিটিভির মান উন্নয়নে অনেক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিএনপিসহ কোনো সরকারই বিটিভির মান উন্নয়নে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। আরও ছয়টি নতুন টেলিভিশনকেন্দ্র স্থাপনের পদক্ষেপ নিয়েছি। গত ১০ বছরে গণমাধ্যমের যে বিকাশ ঘটেছে সেটা আগে কখনও হয়নি। অনলাইন হাতে গোনা কয়েকটি ছিল। নিবন্ধনের জন্য এখন পর্যন্ত ৮ হাজারের বেশি দরখাস্ত পড়েছে। ১৫ জুলাই পর্যন্ত সময় আছে, আরো আবেদন পড়বে। অনলাইনের এই যে বিশাল বিকাশ সেটা এই সরকারের সময় হয়েছে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, একজন সংসদ সদস্য বলেছেন বয়স্কদের দিয়ে বিটিভির খবর পড়ানো হয়। এই বক্তব্যের আমি আপত্তি জানাচ্ছি। তাহলে সুন্দরী তরুণী দিয়ে খবর পাঠ করানো হবে। সুন্দর চেহারা ও কম বয়স সুযোগ্যতার মাপকাঠি হতে পারে না। আমি এ বক্তব্যের আপত্তি জানাচ্ছি।

সংসদে দেরি করে আসায় জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমামের বক্তব্য প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, খখরুল ইমাম বলেছেন সংসদ সবার উপরে। আমি ওনার সঙ্গে একমত, ওনাকে ধন্যবাদ জানাই। আমি যেখান থেকে ১০ মিনিটে আসা যায় সেখান থেকে আসার জন্য ৪০ মিনিট আগে রওয়ানা দিয়েছি। তারপরও আমার ১ ঘণ্টা ১০ মিনিট সময় লেগেছে। ভয়াবহ যানজটের কারণে এতো দেরি হয়েছে। অন্য দিনের তুলনায় আজ যানজট বেশি।

এর আগে তথ্যমন্ত্রীর অনুপস্থিতির কারণে বিলটি উপস্থাপন স্থগিত রাখা হয়। পরে তথ্যমন্ত্রী এসে বলেন, আমি যথাসময়ে পৌঁছাতে পারিনি। এজন্য দুঃখিত। আমার একটা জরুরি কাজ ছিল, সেখান থেকে এক ঘণ্টা আগে রওয়ানা দিয়েও যানজটের কারণে সংসদে পৌঁছাতে পারিনি। মন্ত্রী বিলটি উপস্থাপনের পর বিলটির উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে বিরোধীদল জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমাম বলেন, যানজট মেনে নিতে পারি কিন্তু সংসদ ছাড়া অন্য জরুরি কাজ মেনে নিতে পারি না। এটা বলে সংসদকে ছোট করা হয়। সংসদ থাকলে অন্য কোনো কাজ থাকতে পারে না।