২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খুলনায় আইএলএসটি প্রকল্পের কাজ অর্ধেকের বেশি সম্পন্ন

 খুলনায় আইএলএসটি প্রকল্পের কাজ  অর্ধেকের বেশি সম্পন্ন
  • আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ভর্তি শুরু করার পরিকল্পনা

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে সরকারের উন্নয়নমুখী পদক্ষেপের অংশ হিসেবে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার শাহপুর বাজারের পাশে স্থাপন করা হচ্ছে ইনস্টিটিউট অব লাইভস্টক সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (আইএলএসটি)। ২০১৪ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজ এখন দ্রুত এগিয়ে চলেছে। ইতোমধ্যে ৫০ শতাংশের বেশি কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে এখানে শিক্ষার্থী ভর্তি করার পরিকল্পনা রয়েছে। সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন, এই আইএলএসটি চালু হলে কৃষক ও খামারিদের রোগমুক্ত, সুস্থ গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি উৎপাদনে পরামর্শসহ অন্যান্য সেবা প্রদান করা সম্ভব হবে। দেশে খাদ্য নিরাপত্তা ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ডিম, দুধ ও মাংসের উৎপাদন বৃদ্ধিসহ দক্ষ জনশক্তি গড়ে উঠবে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অবদান রাখবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, খুলনার ডুমুরিয়া-ফুলতলা আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য সাবেক মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকাকালে ডুমুরিয়ার শাহপুরে ইনস্টিটিউট অব লাইভস্টক সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (আইএলএসটি) স্থাপনের উদ্যোগ নেন। যে স্থানটিতে প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে সেখানে যাতায়াতের জন্য কোন রাস্তা ছিল না। নারায়ণ চন্দ্র চন্দ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের সহায়তায় টিআর কাবিখার অর্থে বালি দিয়ে জলাশয় ভরাট করে চলাচলের রাস্তা তৈরি করে দেন। বর্তমানে আইএলএসটির অবকাঠামো তৈরির কাজ অর্ধেকের বেশি সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ থেকেই ওই প্রতিষ্ঠানে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রাণিসম্পদ অধিদফতর অফিস সূত্রে জানা গেছে, কৃষিভিত্তিক অর্থনীতিতে প্রাণিসম্পদ সেক্টরের অবদান দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। খাদ্য নিরাপত্তা ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ডিম, দুধ ও মাংসের গুরুত্ব অপরিসীম। খাদ্য নিরাপত্তার ক্ষেত্রে প্রাণিজ আমিষ বিশেষ করে ডিম, দুধ এবং মাংসের অনেক ঘাটতি রয়েছে। এই ঘাটতি পূরণে খুলনায় আইএলএসটি প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়। প্রতিঠানটি চালু হলে এখান থেকে প্রাণিসম্পদের ওপর ডিপ্লোমাসহ সমমানের অন্যান্য কোর্সের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি তৈরিসহ কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ২০১৪ সালের জুলাই মাসে আইএলএসটি প্রকল্প বাস্তবায়নে মাঠ পর্যায়ে কাজ শুরু করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। ৩৫ কোটি টাকা ব্যয় সাপেক্ষে এ প্রকল্পের জন্য ৭০ লাখ টাকায় তিন একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়।

সূত্র জানায়, আইএলএসটি প্রকল্পের আওতায় অবকাঠামোর মধ্যে রয়েছে একাডেমিক, প্রশাসনিক ভবন, ভেটেরিনারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরি, অডিটরিয়াম, ক্যাফেটরিয়া এবং শিক্ষক ডরমিটরি, চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর ডরমিটরি, ছোট প্রাণী এবং বড় প্রাণির জন্য ফার্ম বিল্ডিং, অধ্যক্ষের বাসভবন, কোয়ার্টার, ছাত্র ও ছাত্রী হোস্টেল নির্মাণ এবং থাকবে খেলার মাঠ।

খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ অরুন কান্তি মন্ডল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতা এবং খুলনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দের প্রচেষ্টায় খুলনায় ইনস্টিটিউট অব লাইভস্টক সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (আইএলএসটি) প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে এখানে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করা যাবে বলে আশা করছি। তিনি বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি গড়ে উঠবে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

নির্বাচিত সংবাদ