১৬ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রক্তপাতের পরেও দমানো যায়নি ক্যারিকে

রক্তপাতের পরেও দমানো যায়নি ক্যারিকে

অনলাইন ডেস্ক ॥ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলতে নেমে চোট পেলেন অস্ট্রেলিয়ার উইকেটকিপার অ্যালেক্স ক্যারি। ইংল্যান্ড পেসার জোফ্রা আর্চারের বলে চিবুক ফেটে মাঠেই রক্তপাত হয় তাঁর। কিন্তু তা সত্ত্বেও দমানো যায়নি তাঁকে। প্রাথমিক শুশ্রূষার পরে চোয়ালে ব্যান্ডেজ বেঁধেই ব্যাট করে যান তিনি। ৭০ বল খেলে চারটি চার-সহ ৪৬ রান করে আদিল রশিদের বলে আউট হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

ঘটনাটি ঘটে অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের অষ্টম ওভারে। তাঁর আগের ওভারেই আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে গিয়েছেন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। অষ্টম ওভারে বল করতে এসেছিলেন ইংল্যান্ড পেসার আর্চার। সেই ওভারের শেষ বলেই এই ঘটনা ঘটে। ঘণ্টায় ৮৬ মাইল বেগে ছুটে আসা আর্চারের শর্ট বল ব্যাটফুটে চলে যাওয়া ক্যারির দুই হাতের মাঝখান দিয়ে ঢুকে সরাসরি চিবুকে আঘাত করে। উড়ে যায় ক্যারির হেলমেটও। তার পরেই দেখা যায় ক্যারির চিবুক থেকে রক্তপাত হচ্ছে। চিন্তিত মুখে ছুটে যান নন স্ট্রাইকার ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ। স্কোরবোর্ডে তখন অস্ট্রেলিয়ার রান ১৯-৩। ক্যারির রান ৪। ছুটে আসেন ইংল্যান্ড ক্রিকেটারেরাও।

এই ঘটনা মনে করিয়ে দিয়েছিল ২০০৫ সালের অ্যাশেজ সিরিজের কথা। যেখানে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে ইংল্যান্ডের স্টিভ হার্মিসনের বলে মুখ ফেটে রক্ত ঝরেছিল অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিংয়ের। সে দিন ঘটনার সময় তিনিও ব্যাট করছিলেন চার রানে। তবে তফাত এটাই, সে দিন দু’ ওভার পরেই হার্মিসনের বলে আউট হয়ে ফিরে গিয়েছিলেন পন্টিং। সেখানে এ দিন ক্যারি আউট হন ২৭.২ ওভারে। এই বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার ত্রাতা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ক্যারি। ভারতের বিরুদ্ধে এই বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান কার্যকরী ইনিংস খেলেছিলেন। কিন্তু এ দিন অর্ধশতরানের কাছে গিয়ে থেমে যাওয়ার পাশাপাশি ফাইনালের আগেই থামতে হল ক্যারি ও তাঁর দল অস্ট্রেলিয়াকে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা