২০ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আদালতের নিষেধাজ্ঞা ,পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে মুক্তিযোদ্ধার সম্পত্তি দখল করে ঘর নির্মান

আদালতের নিষেধাজ্ঞা ,পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে মুক্তিযোদ্ধার সম্পত্তি দখল করে ঘর নির্মান

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ আদালতের নিষেধাজ্ঞা ও থানা পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার ক্রয়কৃত সম্পত্তি জবর দখল করে শুক্রবারও ঘর নির্মানের কাজ অব্যাহত রেখেছেন স্থানীয় প্রভাবশালী এক ব্যক্তি। তাদের বাঁধা দেয়ায় স্ব-পরিবারে মুক্তিযোদ্ধাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম মোল্লা। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার কালনা গ্রামের।

ওই গ্রামের মৃত আশ্রাব আলী মোল্লার পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা করিম মোল্লা জানান, তিনি বাড়িতে না থাকার সুযোগে একই বাড়ির রহিম মোল্লা ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে তার ক্রয়কৃত সম্পত্তি দখল করে গাছপালা কেটে ও দোকান ঘর ভেঙ্গে ফেলে অস্থায়ী টিনের ঘর নির্মান করেন। খবর পেয়ে তিনি (মুুক্তিযোদ্ধা) বুধবার বিকেলে বাড়িতে ফিরে এ ঘটনার প্রতিবাদ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রহিম মোল্লা ও তার ভাড়াটিয়া লোকজনে মুক্তিযোদ্ধা করিম মোল্লা এবং তার স্ব-পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শন করে।

মুক্তিযোদ্ধা করিম মোল্লা আরও জানান, বিষয়টি তিনি বৃহস্পতিবার দুপুরে থানা পুলিশকে অবহিত করার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মুক্তিযোদ্ধার সম্পত্তিতে ঘর নির্মান কাজ বন্ধ করে দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পর পূর্ণরায় নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী রহিম মোল্লা।

মুক্তিযোদ্ধা করিম মোল্লা বলেন, আমি আমার ওয়ারিশদের কাছ থেকে সাতটি দলিলের মাধ্যমে কালনা মৌজার ৫৬ শতক সম্পত্তির মধ্যে ৪৯ শতক ক্রয় করে দীর্ঘদিন থেকে ভোগদখল করে আসছি। এরইমধ্যে প্রতারনার মাধ্যমে একই বাড়ির রহিম মোল্লা তার ক্রয়কৃত সম্পত্তির মধ্যে ২৬ শতক জমির রেকর্ড করিয়ে নেয়। বিষয়টি জানতে পেরে আমি (মুক্তিযোদ্ধা করিম মোল্লা) বাদি হয়ে মোকাম বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। আদালতের বিচারক তদন্তপূর্বক আগামী ২৮ জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য গৌরনদী উপজেলা সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) নির্দেশ দেন। তদন্তের আগেই রহিম মোল্লা ওই সম্পত্তিত্বে নিজের দখল দেখাতে ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে আমার সম্পত্তি জবর দখল করে অস্থায়ী টিনের ঘর নির্মান করে একটি সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেয়। মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবারের সদস্যরা তাদের সম্পত্তি রক্ষার জন্য প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।