২৩ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আকাশসীমা খুলে দিয়েছে পাকিস্তান

আকাশসীমা খুলে দিয়েছে পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক ॥ নিজেদের আকাশসীমা খুলে দিয়েছে পাকিস্তান। মঙ্গলবার সকাল থেকে সব ধরনের বেসামরিক বিমান চলাচল পুণরায় শুরু হবে। গত ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানের বালাকোটে অভিযানের পর নিজেদের আকাশসীমা বন্ধ করে দিয়েছিল পাকিস্তান। ফলে পাকিস্তানের আকাশসীমায় অধিকাংশ অংশেই ভারতীয় বিমান চলাচলের অনুমতি ছিল না।

পাকিস্তান নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে আকাশসীমা খুলে দেয়ায় স্বস্তি পেল ভারতের এয়ার ইন্ডিয়াসহ বিভিন্ন বিমান সংস্থা। পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি না থাকায় অনেকদিন ধরেই এয়ার ইন্ডিয়ার আন্তর্জাতিক ফ্লাইটগুলো ভিন্ন রুট ব্যবহার করে চলাচল করছিল।

বেশ কিছু সূত্র পিটিআইকে জানিয়েছে, পাকিস্তান সব এয়ারলাইন্সের বিমানকে তাদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। আজ রাত (স্থানীয় সময় সোমবার) ১২টা ৪১ মিনিট থেকেই পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহার করা যাবে। ভারতীয় বিমান সংস্থার বিমানগুলো পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহার করে আগের মতোই স্বাভাবিকভাবে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারতের পুলওয়ামায় হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে অভিযান চালায় ভারতীয় বিমান বাহিনী। এরপর থেকেই নিজেদের আকাশসীমা বন্ধ করে রেখেছিল পাকিস্তান।

ওই অভিযানের পর ভারত থেকে ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রগামী এয়ার ইন্ডিয়ার অনেক আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ভিন্ন রুটের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়েছে বা অনেক ফ্লাইট বাতিলও করা হয়েছে।

পাকিস্তান তাদের আকাশসীমা বন্ধ করে দেয়ায় গত ২ জুলাই পর্যন্ত ভারতের রাষ্ট্র আয়ত্ত বিভিন্ন বিমান সংস্থার ৪৯১ কোটি রুপি ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া বেসরকারি বিমানসংস্থা স্পাইসজেট, ইন্ডিগো এবং গোএয়ারের ক্ষতি হয়েছে যথাক্রমে ৩০ কোটি ৭৩ লাখ, ২৫ কোটি এক লাখ এবং ২ কোটি এক লাখ রুপি।

পাকিস্তানের আকাশসীমা বন্ধ থাকায় দিল্লি থেকে ইস্তামুলগামী সরাসরি বিমানের ফ্লাইট চালু করতে পারছিল না ভারতের সবচেয়ে বড় বিমান সংস্থা ইন্ডিগো। গত মার্চেই দিল্লি থেকে ইস্তাম্বুলগামী সবচেয়ে কম খরচের ফ্লাইট চালু করেছিল ইন্ডিগো। কিন্তু পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহার করতে না পারায় আরব সাগরের ওপর দিয়ে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে কাতারের দোহায় যাত্রা বিরতি দিয়ে পুণরায় জ্বালানি নিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করতে হচ্ছিল। এতে ওই বিমান সংস্থার খরচও অনেক বেড়ে গিয়েছিল।