২৬ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রিজার্ভ থেকে ২৩৪ কোটি ডলার বিক্রি

রিজার্ভ থেকে ২৩৪ কোটি ডলার বিক্রি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আমদানি ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় ডলারের ক্রমাগত চাহিদা পূরণের মাধ্যমে বিদেশি মুদ্রার বাজার স্থিতিশীল রাখতে সদ্যবিদায়ী অর্থবছরে (২০১৮-১৯) ২৩৩ কোটি ৯০ লাখ ডলার আন্তঃব্যাংক বাজারে বিক্রি করেছে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক, আগের অর্থবছরের চেয়ে যা এক দশমিক ২১ শতাংশ বেশি। এর আগের অর্থবছরে (২০১৭-১৮) আন্তঃব্যাংক বাজারে ২৩১ কোটি ১০ লাখ ডলার বিক্রি করেছিল সংস্থাটি। এই দুই অর্থবছরে বাংলাদেশ ব্যাংক বাজার থেকে কোনো ডলার কেনেনি। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। সংস্থাটির কর্মকর্তারা বলছেন, গত দুই-আড়াই বছর ধরে ডলারের দর ঊর্ধ্বমুখী ধারায় রয়েছে। এই সময়ে বাজার স্থিতিশীল রাখতে রিজার্ভ থেকে ব্যাংকগুলোর কাছে ডলার বিক্রি করা হয়।

জানা গেছে, গত এক বছরে ডলারের বিপরীতে টাকার অবচিতি ঘটেছে এক দশমিক ৫৩ শতাংশ। প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায়, চলতি বছরের মার্চ শেষে ডলারের মূল্যমান ছিল বাংলাদেশি মুদ্রায় ৮৪ দশমিক ২৫ টাকা। ২০১৮ সালের মার্চে এই দর ছিল ৮২ দশমিক ৯৬ টাকা। সে হিসেবে এক বছরে টাকার অবচিতি হয়েছে এক দশমিক ৫৩ শতাংশ।

এদিকে ডলারের দর ঊর্ধ্বমুখী থাকায় অন্য যেকোনো অর্থবছরের তুলনায় বিদায়ী অর্থবছরে রেমিট্যান্স বেশি এসেছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত এক হাজার ৬৩১ কোটি ১০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। বাকি দুই দিনে আসা রেমিট্যান্সের অঙ্ক এর সঙ্গে যোগ হলে অর্থবছর শেষে রেমিট্যান্স এক হাজার ৬৫০ কোটি ডলারে দাঁড়াবে বলে আশা করছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা।