২০ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শীঘ্রই রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে ॥ মোজাম্মেল হক

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ১৭ জুলাই ॥ মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক বলেছেন, ৭১ সালে যারা এ দেশে গণহত্যা, লুণ্ঠন ও নারী নির্যাতনসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল। শীঘ্রই সেই রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, জেলা পরিষদসহ সকল মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে ওই রাজাকারদের তালিকা দেয়া হবে। তিনি বলেন, জাতির সন্তানদের যারা নির্মমভাবে হত্যা করেছে তাদের বিচারের রায় কার্যকর করে দেশকে কলঙ্কমুক্ত করা হয়েছে। বুধবার পলাশবাড়িতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভবন উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী আরও বলেন, আগামী ২০২০ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী মুজিব দিবস পালন করা হবে। এই দিবস উপলক্ষে ৬৪ জেলায় অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ১৬ হাজার ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেয়া হবে। মন্ত্রী বলেন, রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণই বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের ঘোষণা। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এ দেশ স্বাধীন হতো না। তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, চলতি অর্থবছর থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিবছর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিজয় ও স্বাধীনতা দিবস এবং বৈশাখী ভাতা দেয়া হবে।

মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলা সদরে সাদুল্যাপুর, সুন্দরগঞ্জ, গোবিন্দগঞ্জ ও পলাশবাড়ি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। এলজিইডি’র তত্ত্বাবধানে প্রতিটি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণে প্রায় সোয়া ২ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে পৃথকভাবে ৪টি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভবনের উদ্বোধন করা হয়।