২২ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রিফাত হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে মিন্নির জবানবন্দী

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেফতার হওয়া প্রধান সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে। এদিকে মামলার অন্যতম আসামি রিশান ফরাজীকে পাঁচদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। -খবর নিজস্ব সংবাদদাতার।

চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত প্রধান সাক্ষী মিন্নি পাঁচদিনের রিমান্ড শেষ হওয়ার পূর্বেই দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে। শুক্রবার বিকেল তিনটায় মঞ্জুরকৃত পাঁচদিনের রিমান্ডের তৃতীয় দিনে মিন্নিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। সন্ধ্যা সাতটার দিকে তার জবানবন্দী নেয়া শেষ হয়েছে। এ নিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে এখন পর্যন্ত তেরোজন আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা থানার পরিদর্শক মোঃ হুমায়ুন কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির নিকট থেকে তিনদিনের মধ্যেই তথ্য পাওয়ায় রিমান্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্বেই তাকে আদালতে হাজির করা হয়। মিন্নি স্বেচ্ছায় ১৬৪ ধারায় দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছে।

জবানবন্দী চলাকালীন আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর সংবাদকর্মীদের জানান, মিন্নিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জবানবন্দী দেয়ার জন্য বাধ্য করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, মামলাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য একটা মহল ষড়যন্ত্র করে মিন্নিকে গ্রেফতার করে নানামুখী হয়রানি করছে।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তারা ১৬ জনকে জীবিত অবস্থায় গ্রেফতার করেছেন। মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড গত ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছেন।

রিশান ফরাজী পাঁচদিনের রিমান্ডে ॥ রিফাত শরীফ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রিশান ফরাজীকে পাঁচদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল দশটার দিকে রিশানকে বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করার জন্য আবেদন করে বরগুনার পুলিশ। বিচারক তার পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। রিশান ফরাজীকে বৃহস্পতিবার সকাল দশটা পাঁচ মিনিটে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সুপার মোঃ মারুফ হোসেন জানিয়েছেন, রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তারা ১৬ জনকে জীবিত অবস্থায় গ্রেফতার করেছেন। মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড গত ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে। গ্রেফতারকৃত আসামিদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ১২ জন ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে। গ্রেফতারকৃত আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৩ জন এখনও রিমান্ডে রয়েছে।