১৫ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ছেলে ধরার গুজবে নৃশংসতা ক্রমেই বাড়ছে

  ছেলে ধরার গুজবে নৃশংসতা ক্রমেই বাড়ছে
  • গণপিটুনিতে দুই নারীসহ নিহত ৩

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পদ্মা সেতুতে মানুষের মস্তক প্রয়োজন বলে গুজব রটিয়ে নেত্রকোনা ও রাজশাহীতে গলাকাটার ঘটনার পর এ ধরনের নৃশংসতা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। শনিবার ছেলে ধরার গুজব ছড়িয়ে রাজধানীসহ দেশব্যাপী গণপিটুনিতে দুই নারীসহ তিনজন জনকে হত্যা করা হয়। মারাত্মক আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৫ জন। ছেলে ধরা সন্দেহে এক রোহিঙ্গা নারীসহ হাতে-নাতে ধরা পড়েছে ৪ জন। গণপিটুনির হাত থেকে রেহাই পায়নি বৃদ্ধ পাগলও। রাজধানীর বাড্ডা, কেরানীগঞ্জ, সিদ্ধিরগঞ্জ, গফরগাঁও, মহেশখালি, সীতাকু-, বাঁশখালী ও নাটোরে এসব হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

হঠাৎ এ ধরনের গণপিটুনিতে হতাহতের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক নুরুল আনোয়ার জনকণ্ঠকে বলেন, এ ধরনের তথাকথিত গণপিটুনির ঘটনা আরও ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। শান্তিপূর্ণ অবস্থার মধ্যে দেশে বিশেষ পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য নাকি অন্য কোন কারণে হঠাৎ এ ধরনের গণপিটুনির ঘটনা ঘটানো হচ্ছে- সে রহস্য উদঘাটনে খুব দ্রুত ও জরুরী পদক্ষেপ নিতে হবে। খোদ রাজধানীর মতো জনসচেতন এলাকায়ও যখন এ ধরনের গণপিটুনি ঘটানো হচ্ছে- তখন তা আরও ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করার আশঙ্কা থেকে যায়। এখনই কঠোর হস্তে তা মোকাবেলা করতে হবে।

এদিকে পরিস্থিতির ভয়াবহতা আঁচ করতে পেরে পুলিশ সদর দফতর জরুরী বার্তায় দেশব্যাপী এ ধরনের গণপিটুনি থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় সদর দফতরের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়- ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনি ফৌজদারি আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ছেলে ধরার সন্দেহে আইন নিজের হাতে তুলে না নেয়ার আহ্বান জানানো হয়।

বাড্ডায় এক নারী নিহত ॥ শনিবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে উত্তর বাড্ডা কাঁচাবাজার সড়কে গণপিটুনির এ ঘটনা ঘটে। প্রাথমিকভাবে তার নাম পরিচয় জানা যায়নি। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই নারীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বাড্ডা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ছেলেধরা সন্দেহে এক নারী গণপিটুনির শিকার হয়েছেন। খবর পাওয়ার পর পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে পাঠায়। তার পরিচয় জানা যায়নি। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘উত্তর বাড্ডায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি মাদ্রাসা পাশাপাশি সেখানে শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনজন বোরকা পরা নারী যান। তারা স্কুলের ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করেন। বাধার মুখে দুজন পালিয়ে গেলেও এই নারী গণপিটুনির শিকার হন।

কেরানীগঞ্জে নিহত ১ আহত ১ ॥ বুড়িগঙ্গার ওপাড়ে কেরানীগঞ্জেও শিশু চোর সন্দেহে অজ্ঞাতপরিচয় দুই যুবককে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী। এতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যজনকে গুরুতর আহতাবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মালঞ্চ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন হজরতপুর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসী জানায়, সকালে দুই যুবক গ্রামের মধ্যে ঘোরাঘুরি করতে থাকে এবং শিশুদেরও সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে। এতে তাদের ওপর সন্দেহ হলে এলাকাবাসী তাদের ধরে গণপিটুনি দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থালে এসে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে একজনকে ভর্তি করে অন্যজনকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নারায়ণগঞ্জে নিহত ১ আহত ১ ॥ স্টাফ রিপোর্টার নারায়ণগঞ্জ থেকে জানিয়েছেন, মহানগরীর সিদ্ধিরগঞ্জে পৃথক দুটি স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে অজ্ঞাত এক যুবক (২৫) নিহত ও শারমিন বেগম (৩৫) নামে এক নারী আহত হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টায় ও সাড়ে ৯টায় সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজির আল-আমিন নগর ও পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকায় এ ঘটনা দুটি ঘটে। গণপিটুনিতে নিহত ওই যুবকের নাম পরিচয় বিকেল ৫টা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। এদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে শারমিন বেগম নামে এক নারীকে গণপিটুনি দিয়ে এলাকাবাসী আটক করে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করতে গেলে এলাকাবাসীর সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে ওই নারীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জের ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি আল-আমিন নগর এলাকায় আইডিয়াল ইসলামিক কিন্ডার গার্টেন স্কুলের প্লে গ্রুপের ছাত্রী সাদিয়াকে সকাল আটটার দিকে ধরে নিয়ে যাচ্ছিল এক যুবক। এ সময় একই স্কুলের শিক্ষক সাঈদ হৃদয়ার আহমেদ সামনের একটি ফার্মেসিতে বসে ছিলেন। ওই ছাত্রীকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় ওই শিক্ষার্থী তাকে দেখে স্যার স্যার বলে চিৎকার করলে ওই যুবক নিজের মেয়ে বলে তাকে পরিচয় দেয়। কিন্তু শিক্ষার্থী এ সময় ওই যুবক তার পিতা নয় বলে জানালে ওই যুবককে দাঁড়াতে বললে সে একটি রিক্সা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় আশপাশের লোকজন এসে তাকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ তিন শ’ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ জানায়, নিহতের নাম পরিচয় জানা যায়নি। আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে ও বিভিন্নভাবে তার পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

এদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে শারমিন বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে ইতালি প্রবাসী ইসমাইলের বাড়িতে নিয়ে যায়। এ সময় ওই নারীর কথাবার্তা অসংলগ্ন হওয়ায় স্থানীয়রা তাকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি দেয়। এ সময় শারমিন বেগম পাশের বিল্লাল হোসেনের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখানেও তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় এলাকাবাসীর ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ লাঠিচার্জ করে বিল্লালের বাড়ি থেকে আহত অবস্থায় শারমিন বেগমকে উদ্ধার করে খানপুর তিন শ’ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শারমিন বেগম ঢাকার কেরানীগঞ্জের ঝিলমিল এলাকার সালমান শাহর স্ত্রী বলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মীর শাহিন শাহ পারভেজ নিশ্চিত করেছেন।

গফরগাঁওয়ে পাগল আহত ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা গফরগাঁও থেকে জানিয়েছেন, ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে মুন্ডু কাটা ব্যক্তি সন্দেহে এক মানুসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) লোককে গণপিটুনি দেয় জনতা। শুক্রবার রাতে উপজেলার গফরগাঁও ইউনিয়নের গড়াবেড় বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পরে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ ওই ব্যক্তিকে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পুলিশের ভাষ্য গণপিটুনির শিকার ব্যক্তিটি মানুসিক ভারসাম্যহীন (পাগল)। গণপিটুনির শিকার ওই ব্যক্তির নাম মনোরঞ্জন বর্মণ (৪০)। সে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানার পাইনা গ্রামের অমরণ চন্দ্র বর্মণের ছেলে বলে পুলিশ জানিয়েছে। তবে লোকটি মানুসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় পুলিশের কাছে দেয়া ঠিকানাটি সঠিক কিনা সে বিষয়ে পুলিশও শতভাগ নিশ্চিত হতে পারেনি।

মহেশখালীতে রোহিঙ্গা নারী আটক ॥ স্টাফ রিপোর্টার কক্সবাজার থেকে জািনয়েছেন, মহেশখালীতে ছেলেধরা সন্দেহে এক রোহিঙ্গা নারীকে আটক করেছে স্থানীয়রা। শনিবার দুপুরে কালারমারছড়ার চালিয়াতলী থেকে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

সীতাকুন্ডে রোহিঙ্গা নারী আটক ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা সীতাকুন্ড থেকে জানিয়েছেন, ছেলেধরা অভিযোগে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে রেহেনা বেগম (৪৫) নামে এক রোহিঙ্গা নারীকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে উপজেলার সলিমপুর ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ি সংলগ্ন সাঙ্গু রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আটককৃত নারী আলীপুর এলাকায় হারুনের স্ত্রী। তবে সে আসল ঠিকানা পুলিশকে বলতে নারাজ।

নাটোর মাইক্রোবাস দেখেই আতঙ্ক ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা নাটোর থেকে জানিয়েছেন, বড়াইগ্রামের জোয়াড়ি-কাঁছুটিয়া গ্রামীণ সড়কে একটি কালো রংয়ের হাইয়েজ মাইক্রোবাস চলাচল করতে দেখেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে ওই এলাকায়। কে বা কারা ছেলেধরার জন্য এই গাড়ি নিয়ে এসেছে এমন গুজব প্রচার মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়লে আতঙ্কগ্রস্ত অভিভাবকেরা শনিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা জোয়াড়ি ইউনিয়নের কাঁছুটিয়া সরকারী প্রাইমারি স্কুল থেকে ক্লাস চলাকালীন সময়েই তাদের শিশু সন্তানদের বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যায়।

বাঁশখালীতে পথযাত্রীকে আটক ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা বাঁশখালী থেকে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার গন্ডামারা ইউপির বাজার ব্রিজ একদল মানুষ ছেলেধরা সন্দেহে একজনকে ধাওয়া দিয়ে ধরে ফেলে। তবে প্রকৃতপক্ষে ওই মানুষটি ছিল মেডিক্যাল ফেরত পথযাত্রী। পরে স্থাানীয় জনতা বিষয়টি আঁচ করতে পেরে অঘটনের আগেই রক্ষা পেল ওই মানুষটি। তাছাড়া এর পূর্ব চাম্বল ইউপির বড় মাদ্রাসা এলাকা থেকে চাম্বল বাজারে দক্ষিণ পাশের প্রধান সড়ক জুড়ে তাজা রক্ত রাস্তায় দেখা গিয়েছি এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে পুরো উপজেলায়।

গাজীপুরে মানসিক প্রতিবন্ধী দুজনকে গণপিটুনি ॥ স্টাফ রিপোর্টার গাজীপুর থেকে জানান, গাজীপুরে ছেলেধরা সন্দেহের পৃথক ঘটনায় শনিবার এক নারীসহ মানসিক প্রতিবন্ধী (পাগল) দুজনকে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী। পুলিশ আহতাবস্থায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।