২৪ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঈদে সাধারণ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানের ফেরি পারাপার বন্ধ থাকবে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঈদের আগে পরে তিন দিন সাধারণ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের ফেরি পারাপার বন্ধ থাকবে। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও কোরবানির পশুবাহী ট্রাক এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। আগামী ১২ আগস্ট সম্ভবত ঈদ-উল-আজহা পালিত হবে। ঈদে ঘরমুখী মানুষের যাত্রাকে নির্বিঘ্ন করতে বরাবরের মতো এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

রাজধানীর বিদ্যুত ভবনে ঈদ উপলক্ষে লঞ্চ, ফেরি ও অন্য জলযান সুষ্ঠুভাবে চলাচল, যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রবিবার এক বৈঠক করে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। ওই বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। বৈঠকে জানানো হয় রাতের বেলায় সকল প্রকার মালবাহী জাহাজ, বালুবাহী বাল্কহেড চলাচল বন্ধ রাখতে হবে। ঈদের আগে পরে পাঁচ দিন করে সকল বালুবাহী বাল্কহেড চলাচল বন্ধ থাকবে। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, যাত্রীদের নিরাপদ যাতায়াতে গত ঈদ-উল-ফিতরের সময় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় একটি টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে ভাল কাজ করেছিল। এবারের ঈদ-উল-আজহায়ও সকলে মিলে ঈদ যাত্রাকে আরও নিরাপদ রাখতে চাই। অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে ফেরি চলাচলে বিঘ্ন ঘটলেও আমাদের আরও দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে। কোরবানির পশু আসা নিয়ে নৌপথে অনেক সময় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে থাকে; এসব বিষয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে বেশি নজর দিতে হবে।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবদুস সামাদ, বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান প্রণয় কান্তি বিশ্বাস, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর এম মাহবুব উল ইসলাম, নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম, নৌপুলিশের ডিআইজি মোঃ আতিকুল ইসলাম, কোস্টগার্ডের ঢাকা জোনের কমান্ডার রেজাউল হাসান, বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপার, লঞ্চ মালিক শহীদুল ইসলাম ভূঁইয়া, বদিউজ্জামান বাদল, নৌযান শ্রমিক নেতা মোঃ শাহ আলম ও জাহাঙ্গীর আলম।

এই মাত্রা পাওয়া