২১ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঈদুল আযহা ॥ ৬ দিন মহাসড়কে ভারী যানবাহন চলাচল নিষেধ

ঈদুল আযহা ॥ ৬ দিন মহাসড়কে ভারী যানবাহন চলাচল নিষেধ

অনলাইন রিপোর্টার ॥ আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে মহাসড়কে চাপ কমাতে ঈদের আগের তিন দিন ও পরের তিনদিন ট্রাক-লরি-কাভার্ড ভ্যানসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া ঈদের আগে সাতদিন ও পরের তিনদিন সিএনজি স্টেশন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকার কথাও জানান তিনি।

আজ সোমবার সচিবালয়ে ঈদে সড়ক বিভাগের প্রস্তুতি ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে একথা জানান মন্ত্রী।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রস্তুতি, মহাসড়কের অবস্থা ভালো, আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো। সড়কের কারণে যানজটের কারণ সৃষ্টি হবে না। দেশের বন্যা কবলিত এলাকার সড়কগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেগুলো জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করা হচ্ছে। তবে মহাসড়কগুলোতে কোথাও সমস্যা সৃষ্টি হওয়ার কোনো কারণ নেই।

‘এভরি হাইওয়েজ ইন গুড সেইফ, রাইট অ্যাট দ্য মোমেন্ট। সামনে ভালো থাকবে, এটাই আমরা আশা করছি।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদুল আজহাতে যত্রতত্র পশুর হাট বসানোর কারণে রাস্তায় সমস্যা হয়। সেটা করা যাবে না, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে। হাইওয়ের পাশে যেন পশুর হাট না বসে, রাস্তার ওপর ও রাস্তার আশেপাশে। ঢাকা সিটিতেও সিটি করপোরেশন পশুরহাট বসানোর ব্যাপারে যাতে শৃঙ্খলার মধ্যে থাকে, জনদুর্ভোগ না হয়, সে ব্যাপারে তাদেরকে লক্ষ্য রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। আশা করি তারা গতবারের মতো এবার বিষয়টি দেখবেন।

‘আর ট্রাক-লরি-কাভার্ড ভ্যান যেগুলো ভারী পরিবহন; ঈদের আগে দিন তিন ও পরের তিনদিন বন্ধ থাকবে। তবে গার্মেন্টস সামগ্রী, জ্বালানি পরিবহনের ক্ষেত্রে ছাড় রয়েছে।’

তিনি বলেন, সিএনজি স্টেশন ঈদের আগে সাত দিন ও পরের তিনদিন ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

‘বিজিএমইএ-কে আমরা বলেছি, ঈদুল ফিতরের মতো এবারও যতোটা সম্ভব বিআরটিসির বাস দিয়ে সহযোগিতা করবো। তবে তারা যেন গার্মেন্টস ধাপে ধাপে ছুটি দেওয়া হয়, সে ব্যাপারে তাদের যে দায়িত্ব সেটি যথাযথ পালন করেন। আমরা চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছি। গতবার ৪০টি বাস দেওয়া হয়েছিল। বাস আছে আমরা দিতে প্রস্তুত।’

বকেয়া আদায়ে বিআরটিসি শ্রমিকদের প্রধান অফিস ঘেরাও প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, এটা সব জায়গায় নয়, কিছু কিছু ক্ষেত্রে হয়েছে। বিআরটিসিতে চেয়ারম্যান পরিবর্তন এসেছে, নতুন চেয়ারম্যান যোগ দিচ্ছে। কিছু কিছু বিশৃঙ্খলার অভিযোগ আছে।

‘যেগুলো মন্ত্রণালয় থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারেরা দেখছেন। বেতনের ব্যাপারটা লার্জ স্কেলে নেই। দু’একটা জায়গায় আছে সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি এবং ব্যবস্থা নিচ্ছি।’