১৯ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এখনও পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেনি বাফুফে

এখনও পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেনি বাফুফে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দেশের বাইরে জাতীয় দলের ক্যাম্প কিংবা প্রীতি ম্যাচের সিদ্ধান্তে আরও সময় নিতে হচ্ছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে)। আফগানিস্তানের হোম ভেন্যুর ওপর নির্ভর করছে অনেক কিছুই। এই মিশনে প্রতিপক্ষ নয়, বরং টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি মনোযোগী থাকতে চান নিজেদের নিয়েই।

দীর্ঘদিন পর ফুটবল স্বপ্ন দেখাচ্ছে বাংলাদেশকে। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডকে সামনে রেখে এখনও পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেনি বাফুফে। আর তা নির্ভর করছে আফগানিস্তানের হোম ভেন্যু ঘোষণার ওপর। অবশ্য এ জন্য ৩১ জুলাই পর্যন্ত সময় পাচ্ছে সব দলই।

বাফুফের স্ট্যাটেজিক এ্যান্ড টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি জানান, ‘ভালো কিছু পেতে পরিকল্পনার বিকল্প নেই। আমরা সবসময় ভাবছি, কীভাবে আরও এগিয়ে যাওয়া যায়। তবে মাঠের খেলা নিয়ে কোচ জেমি ডে তার মতো করে কৌশল সাজাবেন। ছুটি কাটিয়ে তিনি ঢাকায় ফিরলেই বাকি বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে আলাপ করবো।’

স্মলি আরও যোগ করেন, ‘এই রাউন্ডে সব ধরনের দলকে মোকাবেলার প্রস্তুতি রাখতেই হবে। এশিয়ার অন্যান্য দল যত শক্তিশালী, আমি তো মনে করি, বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ তুলনামূলক সহজ। গ্রুপের অন্তত দুই দলের সঙ্গে (ভারত-আফগানিস্তান) বাংলাদেশের ভালো করার সুযোগ আছে।’

এদিকে সেপ্টেম্বরে আবারও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে শুরু হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু অনুর্ধ-১৭ গোল্ডকাপ ফুটবল। এই প্রতিভা বাছাইয়ে এবার সুযোগ পেতে যাচ্ছেন নারীরাও। বাছাইকৃত ফুটবলারদের নিয়ে ক্যাম্প করার জন্য আলাদা বরাদ্দ রাখার দাবি জানিয়েছে ফেডারেশন। গত বছর জাতীয় নির্বাচনের কারণে টুর্নামেন্ট দীর্ঘায়িত হলেও এবার এ বছরের মধ্যেই আয়োজন শেষ করতে চান আয়োজকরা।

উল্লেখ্য, যুদ্ধ-সন্ত্রাস কবলিত দেশ আফগানিস্তানে জাতীয় দলের সঙ্গে যেতে ইতোমধ্যেই অস্বীকৃতি জানিয়েছেন জেমি ডে। বাফুফেকে সেটা জানিয়েও দিয়েছেন। বাফুফে শিগগীরই ফিফার কাছে আফগানিস্তানের নিরাপত্তার ঝুঁকি নিয়ে নিজেদের উদ্বেগের কথা ফিফার কাছে জানাবে। তবে ফিফা যদি আফগানিস্তানে গিয়ে খেলতে বলে তাহলে বাফুফের সেটা মেনে নেয়া ছাড়া কোন উপায় নেই।

আগস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে ঢাকায় ফিরতে পারেন, এমন আভাস দিয়েছেন জেমি। জানিয়েছেন-আগস্টের শেষ সপ্তাহে তিনি দলকে নিয়ে প্রস্তুতিতে নেমে পড়বেন।