১৯ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টিনএজ মিলিয়নিয়ার ফুটবলার!

টিনএজ মিলিয়নিয়ার ফুটবলার!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওয়েইন রুনি, কিলিয়ান এমবাপ্পে থেকে ম্যাথাইস ডি লিখট। টিনেজে যারা নিজেদের নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। তাদের দলে ভেড়াতে ক্লাবগুলো প্রতিযোগিতায় নেমে খরচ করেছে রেকর্ড পরিমান অর্থ।

ডিফেন্ডার হয়েও ইউরোপের সবচেয়ে আলোচিত দলবদল ম্যাথাইস ডি লিখটের। বয়স মাত্র ১৯। অথচ ছোট্ট ক্যারিয়ারেই নেতৃত্ব দিয়েছেন ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাব আয়াক্স আমস্টারডামের।

৭৫ মিলিয়ন ইউরোতে ডি লিখটকে নিয়ে রোনালদোর সঙ্গে তুরিনে গ্যালাক্টিকো যুগের সূচনা করলো য়্যুভেন্তাস। তাঁর চেয়ে এগিয়ে শুধু নেদারল্যান্ডস সতীর্থ ভার্জিল ফন ডাইক, যার জন্য ৮৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছিলো লিভারপুল।

ডি লিখটকে নিয়ে বার্সা, ইউনাইটেডের সঙ্গে য়্যুভেন্তাসের টানাটানি থাকলেও এটাই সবচেয়ে বড় টিনএজ ট্রান্সফারের ঘটনা নয়।

দুবছর আগে মোনাকে থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পেকে কিনতে ১৮০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছিলো পিএসজি। যা ট্রান্সফার ইতিহাসে নেইমারের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। এমবাপ্পে তখন ১৮ বছরের তরুণ।

আর কদিন আগেই বেনফিকা থেকে জোয়াও ফেলিক্সকে কিনতে ১২৬ মিলিয়ন ইউরো ঢেলেছে অ্যাটলেটিকো। রোনালদোর পরে আলোচিত আরেক পর্তুগিজ ফেলিক্স, যার বয়স মাত্র ১৯।

রিয়াল মাদ্রিদ পর পর দুই মৌসুমে বড় অঙ্ক খরচ করেছে আগামীর দুই ব্রাজিলিয়ান তারকার জন্য। গেলবছর ফ্ল্যামেঙ্গো থেকে ১৮ বছরের ভিনিসিয়ুস জুনিয়রকে কিনতে লস ব্লাঙ্কোদের ব্যয় ৪৫ মিলিয়ন ইউরো। সমান খরচ, আরেক কিশোর সান্তোসের রদ্রিগো গোজের পেছনেও।

যদিও এই শতকে টিনএজ দলবদলে প্রথম বড় ঘটনা ২০০৪ সালে। ওয়েইন রুনিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আনতে ৩৭ মিলিয়ন ইউরোতে, এভারটনের সঙ্গে সওদা করেছিলেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন। যার প্রতিদান দিয়েছেন ইংলিশ স্ট্রাইকার, ৫৫৯ ম্যাচে, ক্লাব রেকর্ড ২৫৩ গোল করে।

লুক শ, অ্যন্থোনি মার্শালরাও কিশোর বয়সেই মিলিয়নিয়ার। শুধু ইউরোপের দলবদলের বাজারেই ঝাকুনি দেননি মাঠেও হয়েছেন সফল।