২৩ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীর উন্নয়ন নিয়ে লিটন-রিভা গাঙ্গুলীর দ্বিপাক্ষিক বৈঠক

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাসের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে নগর ভবনে মেয়রের দফতর কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে যৌথ উদ্যোগে পদ্মা নদী ড্রেজিং করে নদীর নাব্য ফিরিয়ে এনে নৌরুট চালু, ট্রেন ও বিমান যোগাযোগ চালু, পারস্পরিক শিক্ষা বিনিময় এবং রেশম শিল্প উন্নয়নে আলোচনা হয়।

মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভারতের বাংলাদেশে নিযুক্ত হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাসের সঙ্গে আমার বৈঠক হলো। আমরা ভারত-বাংলাদেশ যৌথ উদ্যোগে কয়েকটি ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করার কথা বলেছি এবং তিনি সে সব ক্ষেত্রে ভারত সরকারকে সম্মত করানোর যতটুকু করার দরকার করবেন।

তিনি বলেন, ভারতবর্ষের পশ্চিম বাংলার মুর্শিদাবাদের ধূলিয়ান থেকে গোদাগাড়ীর প্রেমতলী হয়ে রাজশাহী পর্যন্ত নৌ রুটটি অনুমোদন আছে। সেটা ভারত-বাংলাদেশ যৌথ উদ্যোগে পুনর্খনন করে সারা বছর নদীর নাব্য বজায় রেখে নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা, যাতে ভারত থেকে মালামাল আনা যায় এবং যাত্রী আনা-নেয়া করা যায়। আমি তার কাছে চেয়েছিলাম রাজশাহী থেকে কলকাতা পর্যন্ত ট্রেন, এটির ব্যাপারেও তিনি ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। আরেকটি হচ্ছে বিমান চলাচল। আমাদের রাজশাহীতে হযরত শাহ মখদুম বিমানবন্দরে অতি শীঘ্রই নতুন একটি দ্বিতল টার্মিনাল ভবনের কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। রানওয়েটি সম্প্রসারিত হওয়ার পরে সেখান থেকে কলকাতা এবং দিল্লী পর্যন্ত বিমান চলাচলের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেছেন, ইতোমধ্যে ঢাকা থেকে গুয়াহাটি বিমান চালু হয়েছে, এটিও করা যাবে, কোন সমস্যা নেই।

মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন আরও বলেন, আমাদের মৃতপ্রায় রেশম শিল্পকে জাগিয়ে তোলার বিষয়ে ভারত সরকার সম্পূর্ণ সহযোগিতা এবং প্রযুক্তিগত সহযোগিতা দিতে চান। তারা চান এই এলাকায় সিল্কের বিপুল সম্ভাবনা জেগে উঠুক, এক্ষেত্রে তারা সহযোগিতার হাত সম্প্রসারিত করবেন। এছাড়া শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ভারতের বিনিময় যেমন শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান, শিক্ষকদের উচ্চতর প্রশিক্ষণ প্রদান-এই ক্ষেত্রে ভারত সরকার আরও বেশি করে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন।

বৈঠককালে রাজশাহীতে নিযুক্ত ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাটি, সেকেন্ড সেক্রেটারি (ভিসা এ্যান্ড কনসুলার) ভিশাল জ্যোতি দাস, জেএসএ প্রশাসন মনিশ কুমার ত্রিপাঠি, রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা বেগম মিলি, সচিব রেজাউল করিম, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, মেয়রের একান্ত সচিব আলমগীর কবির, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ এএফএম আঞ্জুমান আরা বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বরেন্দ্র, গবেষণা জাদুঘর ও পুঠিয়া রাজবাড়ি পরিদর্শন করেন।