২৪ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জরিমানায় পার পেলেন মেসি

জরিমানায় পার পেলেন মেসি

অনলাইন ডেস্ক ॥ কোপা আমেরিকায় দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবলকে ‘দুর্নীতিবাজ’ বলেছিলেন লিওনেল মেসি। ভাবা হচ্ছিল, এ জন্য দুই বছর নিষিদ্ধ হতে পারেন আর্জেন্টাইন তারকা। কিন্তু তেমন কিছুই ঘটল না। বিস্ফোরক সে মন্তব্যের জন্য জরিমানা গুণেই পার পেয়ে যাচ্ছেন মেসি। জরিমানার অঙ্কও মাত্র দেড় হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ লাখ ২৭ হাজার টাকা)।

কোপার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হেরে কনমেবলকে ধুয়ে দিয়েছিলেন মেসি। দাবি করেছিলেন, স্বাগতিক ব্রাজিলকে শিরোপা জেতাতে সম্ভাব্য সব রকম চেষ্টাই করছে কনমেবল। এরপর তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচে চিলির বিপক্ষে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন বার্সেলোনা তারকা। সেমির পর কনমেবলের সমালোচনা করেছিলেন বলে পরের ম্যাচে তাঁকে লাল কার্ড দেখানো হয়েছে, এমন দাবি করেছিলেন মেসি। কোপায় তৃতীয় হওয়ার পদকও নেননি তিনি।

পদক না নেওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠলে লাতিন ফুটবল সংস্থাকে (কনমেবল) একহাত নেন মেসি, ‘এমন দুর্নীতিগ্রস্ত আয়োজনের অংশ হওয়াকে অনুচিত বলে মনে করি। আমরা আরও এগিয়ে যেতে পারতাম। কিন্তু আমাদের ফাইনালে যেতে দেওয়া হয়নি। দুর্নীতি, রেফারি এবং অন্যান্য বিষয়ের জন্য লোকে ফুটবল উপভোগ করতে পারে না।’

কনমেবলকে সরাসরি ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ সংস্থা বলায় দক্ষিণ আমেরিকা ফুটবলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী সংস্থার মারাত্মক সম্মানহানি হয়েছে বলেই মনে করেছিলেন সংশ্লিষ্টরা। এতে মেসির ওপর কঠোর শাস্তির খড়্গ নেমে আসতে পারে, মনে করেছিলেন অনেকে। যদিও বিস্ফোরক এ মন্তব্যের জন্য মেসি পরে ক্ষমাও চান। শেষ পর্যন্ত অল্পের ওপর দিয়েই পার পেলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এ ফুটবলার। চিলির বিপক্ষে তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় এমনিতেই মেসির ওপর এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা ছিল। কনমেবল কাল এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা জারি রাখার পাশাপাশি শুধু জরিমানার অঙ্কটা যোগ করেছে।

কাল জরিমানার খবর প্রকাশ হওয়ার পর ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেন মেসি। বন্ধ-বান্ধব ও পরিবার নিয়ে আনন্দেই ছুটি কাটাচ্ছেন বার্সা তারকা। ২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের খেলা শুরু হবে আগামী বছরের মার্চে। এখনো সূচি চূড়ান্ত হয়নি। ড্রয়ের মাধ্যমে সূচি চূড়ান্ত হলে জানা যাবে কোন ম্যাচটি খেলতে পারবেন না মেসি।

মেসিকে শাস্তি দেওয়ার পাশাপাশি আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ) প্রধান ক্লদিও তাপিয়ার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিয়েছে কনমেবল। ফিফা কাউন্সিল থেকে তাপিয়াকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। গত ৩ জুলাই প্রকাশিত এক চিঠিতে কনমেবলের সমালোচনা করেছিলেন তাপিয়া। নানা গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া ফিফা কাউন্সিলে গত বছর অন্তর্বর্তীকালীন বদলি হিসেবে যোগ দেন তাপিয়া। কনমেবল জানিয়েছে, তাপিয়ার শূন্যস্থান পূরণ করা হবে নির্বাচনের মাধ্যমে।

এই মাত্রা পাওয়া