২৭ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুক্তি পেল ‘গোয়েন্দাগিরি’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকায় শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘গোয়েন্দাগিরি’। চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন নির্মাতা নাসিম সাহনিক। মামুনুর ইসলাম প্রযোজিত চলচ্চিত্রটি পরিবেশনায় আম্মাজান ফিল্মস। ঢাকার কাকরাইলের রাজিয়া হলে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকে হলের সংখ্যা বাড়বে জানিয়েছেন নির্মাতা।

চলচ্চিত্রের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শম্পা হাসনাইন, কল্যাণ কোরাইয়া, মিম চৌধুরী, সীমান্ত আহমেদ, কচি খন্দকার, তারেক মাহমুদ, টুটুল চৌধুরী, শিখা খান, তানিয়া বৃষ্টি, ইশরাত চৈতি, প্রিন্স প্রমুখ। ‘গোয়েন্দাগিরি’ চলচ্চিত্রের গল্পে দেখা যায়, একদল টিনএজ ছেলেমেয়ে ছুটিতে বেড়াতে যাচ্ছে। তাদের একটি বিশেষ পরিচয় হচ্ছে তারা স্বপ্ন দেখে যে ভবিষ্যতে বড় গোয়েন্দা হবে। তাদের কারও আইডল শার্লক হোমস, কারও ফেলুদা, কারও তিন গোয়েন্দা, কারও আবার জেমস বন্ড। তাদের এবারের অভিযানটা শুরু হয় যখন মিডিয়াতে একটি পুরনো ভুতুড়ে বাড়ি নিয়ে হৈ চৈ পড়ে যায়। বনের মধ্যে অবস্থিত বাড়িটি নাকি অভিশপ্ত। অভিশপ্ত এই বাড়ির রহস্য উন্মোচনে ঝাঁপিয়ে পড়ে এই শখের গোয়েন্দারা। তাদের এই অভিযানে রহস্যের স্বাদ যেমন পাওয়া যাবে তেমনি পাওয়া যাবে টিনএজ খুনসুঁটি, টিনএজ রোমান্টিসিজম। ‘গোয়েন্দাগিরি’ চলচ্চিত্র প্রসঙ্গে নির্মাতা নাসিম সাহনিক বলেন, বেশ প্রস্তুতি নিয়ে বড় ধরনের প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করে ‘গোয়েন্দাগিরি’ নির্মাণ করা হয়েছে। ‘গোয়েন্দাগিরি’ হচ্ছে শখের গোয়েন্দাদের কাহিনী। প্রযোজক মামুনুর ইসলাম বলেন, আম্মাজান ফিল্ম দর্শকদের জন্য রুচিশীল ও আকর্ষণীয় চলচ্চিত্র উপহার দিতে চায়। সেই প্রয়াস থেকেই নির্মাণ করা হয়েছে ‘গোয়েন্দাগিরি’ চলচ্চিত্রটি। চলচ্চিত্রটি শিশু-কিশোরদের জন্য একটি অসাধারণ নির্মাণ। এটি এমন একটি চলচ্চিত্র যেটি বড়দেরও শৈশবে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। অভিনেত্রী মিম বলেন, চলচ্চিত্রের শূটিং এবং ডাবিংয়ের সময় বেশ মজা হয়েছিল। ‘গোয়েন্দাগিরি’ চলচ্চিত্রটির কাহিনী একেবারেই আলাদা। হরর থ্রিলারধর্মী। চিত্রনাট্যও অসাধারণ। চলচ্চিত্রে আমার চরিত্রের নাম গোয়েন্দা পিংকি। বেশ চঞ্চল একটা মেয়ে।

নির্বাচিত সংবাদ