২১ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপিকে অতীত কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে ॥ নাসিম

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগ সভাপতিম-লীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, যারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছে, খুনীদের সংসদে বসিয়ে পার্লামেন্টকে কলঙ্কিত করেছে, জঙ্গীর উত্থান ঘটিয়েছে। যারা বাংলাদেশকে দুর্নীতি-সন্ত্রাসের জনপদ বানিয়েছিল সেই বিএনপি নেতৃত্বকে অতীত কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। এরপর তারা যেন গণতন্ত্র, মানবতা ও আইনের শাসনের কথা বলে। বিএনপির অতীত কৃতকর্মের কথা জনগণ কখনও ভুলে যাবে না।

শনিবার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমি আয়োজিত বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৯তম জš§বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছেন জিয়াউর রহমান, এইচএম এরশাদ ও খালেদা জিয়া। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সেই কালরাতের মতোই বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে টার্গেট করে ১৯৮৯ সালে খুনীর দল ফ্রিডম পার্টি হামলা চালিয়েছিল ধানম-ি ৩২ নম্বর সড়কের বঙ্গবন্ধু ভবনে।

তিনি বলেন, ইমডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচারের পথ বন্ধ করা হয়েছিল। তারা খুনীদের এমপি বানিয়েছিল, এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে আমাকে জেলে যেতে হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ইমডেমনিটি অধ্যাদেশ বাতিল করে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচার করেছেন। এতে জাতি কিছুটা হলেও কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। তিনি বলেন, সমস্ত সাহসী নেতার শক্তি হলো সহধর্মিণী। বঙ্গমাতা যদি বঙ্গবন্ধুকে সাহস না যোগাতেন তাহলে হয়তো স্বাধীনতা সংগ্রাম হতো না, এই দেশ স্বাধীন হতো না। বঙ্গবন্ধু একাডেমির সভাপতি নাজমুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জাসদ সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ দিলীপ রায়, আওয়ামী লীগ নেতা এমএ করিম, বঙ্গবন্ধু একাডেমির মহাসচিব হুমায়ুন কবির মিজি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

নির্বাচিত সংবাদ