১৮ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্ত্রীকে হত্যা করে লাশ ১৫ টুকরা

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরের শ্রীপুরে গার্মেন্টস কর্মী এক নারীকে হত্যা করে লাশ ১৫ টুকরা করেছে পাষ- স্বামী। পুলিশ ঘরের ড্রেসিং টেবিলের ড্রয়ার থেকে নিহতের ৫ টুকরো মাংস পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের ঘাতক স্বামী মামুন মিয়াকে (২৫) সাভারের কবিরপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার তার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার জানান, নেত্রকোনার পূর্বধলা থানার দেবকান্দা গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে সুমা আক্তার ওরফে সুমির (২৭) সঙ্গে প্রায় দু’বছর আগে গাজীপুরের কাপাসিয়া থানার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বরইবাড়ি এলাকার ফজলুল হকের ছেলে মামুন মিয়ার বিয়ে হয়। এটি উভয়ের দ্বিতীয় বিয়ে। বর্তমান সংসারে কোন সন্তানের জন্ম না হলেও তাদের উভয়ের পূর্বের সংসারের একজন করে সন্তান রয়েছে। ওই দু’সন্তানের একজন তার দাদির কাছে এবং অপরজন তার নানির কাছে থাকে। বিয়ের পর সুমা তার স্বামী মামুনকে নিয়ে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গিলারচালার শফিকুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় সাবলাইম গ্রীনটেক নামের এক পোশাক কারখানার সুয়িং অপারেটর পদে চাকরি করত। মামুন ওই এলাকায় ইলেক্ট্রিশিয়ানের কাজ করত। বিয়ের কিছুদিন পর হতে পারিবারিক বিষয়াদি নিয়ে মামুন ও সুমার মধ্যে ঝগড়াবিবাদ চলে আসছিল। সম্প্রতি সুমার জমানো ৪০ হাজার টাকা ও মামুনের নারীঘটিত বিষয়াদি নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে দাম্পত্য কলহ চরম আকার ধারণ করে। পুলিশ সুপার জানান, ঈদের ছুটি কাটাতে শুক্রবার স্বামীকে নিয়ে নেত্রকোনা গ্রামের বাড়ি যাওয়ার প্রস্তুতি নেয় সুমা। অপরদিকে আগেরদিন স্ত্রীকে হত্যার পরিকল্পনা করে মামুন।