২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখতে মরিয়া বাংলার কিশোর ফুটবলাররা ...

শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখতে মরিয়া বাংলার কিশোর ফুটবলাররা ...

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শিরোপা জেতার চেয়ে তা ধরে রাখা কঠিন। আর সেই কঠিন কাজটিই করতে চায় বাংলার কিশোর ফুটবলাররা। দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অক্ষুণ্ন রাখতে মরিয়া তারা। আগামী ২১ আগস্ট থেকে ভারতের কলকাতার কল্যাণীতে শুরু হচ্ছে সাফ অনুর্ধ-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ। ১১ দিনব্যাপী এই আসরে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল, ভুটান, শ্রীলঙ্কা ও স্বাগতিক ভারত। সোমবার রওয়ানা হবে বাংলাদেশ দল। ২৩শে আগস্ট ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার মিশন শুরু করবে লাল-সবুজ বাহিনী।

গতবারের রানার্সআপ পাকিস্তান এবার খেলছে না এই আসরে। পাঁচ দেশ অংশ নিচ্ছে বলে পাল্টে গেছে ফরম্যাট। এবার দলগুলো খেলবে রবিন লিগ ভিত্তিতে। সর্বোচ্চ পয়েন্টধারী দু’টি দেশ ফাইনাল খেলবে। ২৩ আগস্ট ভুটান, ২৫ আগস্ট শ্রীলঙ্কা, ২৭ আগস্ট নেপাল ও ২৯ আগস্ট ভারতের বিপক্ষে খেলবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। ৩১ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ।

আগের পাঁচ আসরের দু’বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। ২০১৫ সালে সিলেটে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ভারতকে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় স্বাগতিকরা। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে ড্র ছিল। গত বছর নেপালে অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের ফাইানালে পাকিস্তানকে টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে হারিয়ে শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছিল বাংলাদেশ। এখানেও নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলে ড্র ছিল।

এ বছরের শুরুতে ঢাকার বাড্ডার বেরাইদে ফর্টিজ গ্রুপের মাঠে যে একাডেমি চালু করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে), সেখান থেকেই গঠন করা হয়েছে সাফের দল। এই প্রথম বয়সভিত্তিক এই টুর্নামেন্টে নিজস্ব খেলোয়াড় নিয়ে দল গড়ে অংশ নেবে বাফুফে। পাঁচ মাস আগে বাফুফে প্রতিভা অন্বেষণের মাধ্যমে খেলোয়াড় বাছাই করে একাডেমিতে নিয়ে যায়। সেখানেই চলে তাদের প্রস্তুতি। বর্তমানে অ-১৫ দলের ২৭ ফুটবলার রয়েছে একাডেমিতে। সেখান থেকে ২৩ ফুটবলার নিয়ে ভারত যাবেন ব্রিটিশ কোচ রবার্ট মার্টিন। তার সঙ্গে দুই স্থানীয় কোচ মাহবুব আলম পলো এবং জাহান-ই আলম নূরীও যাচ্ছেন।

আগে যেকোন টুর্নামেন্টের মাস চারেক আগে ট্রায়ালের মাধ্যমে খেলোয়াড় বাছাই করে স্থানীয় কোচদের অধীনে কোচিং করিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হতো বিদেশে। আর এবার পুরো পাঁচ মাসের নিরবিচ্ছিন্ন প্রস্তুতি নিয়ে যাচ্ছে কিশোররা। এই টুর্নামেন্টের জন্যই ক্যাম্পে থাকা ফুটবলারদের ঈদের ছুটি দেননি কোচ। ঈদের দিন আনন্দ বিরতির পর মঙ্গলবারই আবার অনুশীলনে নামে কিশোর ফুটবলারদের দল।