১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জজকোর্টে ঢুকে মুহরিকে মারধর

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ১৯ আগস্ট ॥ ফরিদপুরে জজকোর্টের ভেতরে ঢুকে এক মুহরিকে (আইনজীবী সহযোগী) পিটিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার বিকেল ৫টার দিকে জেলা ও দায়রা জজকোর্টের নিচতলার পশ্চিম পাশের বারান্দায় এ ঘটনা ঘটে। আহত মুহরিকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত ওই মুহরির নাম হাসান শেখ (৪১)। তিনি ফরিদপুর সদরের অম্বিকাপুর ইউনিয়নের জ্ঞানদিয়া গ্রামের মৃত এম এ রাজ্জাকের ছেলে। হাসান শেখ ফরিদপুর জজকোর্টের আইনজীবী এম এ হান্নানের সহযোগী।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার সময় মুহরি হাসান শেখ জজকোর্টের নিচতলার পশ্চিম পাশের বারান্দায় পেশাগত কাজ করছিলেন। ওই সময় কোর্ট চত্বর এলাকার চায়ের দোকানদার শহরের অম্বিকাপুর এলাকার বাসিন্দা মুরাদ দেওয়ান (৪৮) ও তার ছেলে আকাশ দেওয়ান (২১) জিআই পাইপ দিয়ে মুহরি হাসানকে এলোপাথাড়িভাবে পিটিয়ে আহত করে। এতে হাসানের মাথা ফেটে যায়।

এলাকাবাসী আকাশ দেওয়ানকে আটক করতে পারলেও হামলাকারী তার বাবা মুরাদ পালিয়ে যায়। পরে আকাশকে ফরিদপুর কোতয়ালি থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানায় পরে জেলা ও দায়রা জজ তার গাড়িতে করে আহত হাসানকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

ফরিদপুর কোতয়ালি থানার পুলিশ জানায়, চায়ের দোকানদার মুরাদের সঙ্গে ওই মুহরির টাকা পয়সা লেনদেন সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। হামলার ঘটনায় জড়িত ছেলে আকাশকে আটক করা হয়েছে, তবে হামলাকারী বাবা মুরাদ পালিয়ে গেছে। তিনি বলেন, এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।