২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নেইমার ছাড়া অসহায় পিএসজি

  নেইমার ছাড়া অসহায় পিএসজি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নেইমারের দল বদল নিয়ে প্রতিনিয়ত মঞ্চস্থ হচ্ছে ‘নাটক’। এই জল ঘোলার কারণে ব্রাজিলিয়ান তারকাকে মাঠেই নামাচ্ছে না প্যারিসের পরাশক্তিরা। ফরাসী লীগ ওয়ানের প্রথম ম্যাচে উতরে গেলেও দ্বিতীয় ম্যাচেই উল্টো চিত্র দেখতে হয়েছে।

রবিবার রাতে এ্যাওয়ে ম্যাচে স্বাগতিক রেনেসের বিরুদ্ধে এগিয়ে যেয়েও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে হেরেছে অতিথি পিএসজি। এই ম্যাচে নেইমারের অভাব প্রকটভাবে চোখে পড়েছে। এ নিয়ে চার মাসের ব্যবধানে দুইবার রেনেসের কাছে হারের স্বাদ পেল পিএসজি। এর আগে গত এপ্রিলে ফরাসী কাপের ফাইনালে রেনেসের কাছে হেরে শিরোপা খুইয়েছিলেন ডি মারিয়া, কাভানিরা। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচের ৩৬ মিনিটে ডি সিলভার বাড়ানো বল নিয়ে গোল করে পিএসজিকে এগিয়ে নেন উরুগুয়েন তারকা এডিনসন কাভানি। এরপর ম্যাচের ৪৪ মিনিটে এমবায়ে নিয়াংয়ের গোলে সমতায় ফেরে রেনেস। বিরতির পর শুরুতেই (৪৮ মিনিট) ডেল কাস্টিয়ো হেডে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। বাকি সময়ে চেষ্টা করেও সমতা ফেরাতে পারেনি পিএসজি। যে কারণে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।

এই জয়ে দুই ম্যাচে পূর্ণ ৬ পয়েন্ট নিয়ে গোলব্যবধানে তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছে রেনেস। ৬ পয়েন্ট করে নিয়ে যথাক্রমে এক ও দুইয়ে অলিম্পিক লিও ও নিস। নেইমার যে পিএসজির জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা ম্যাচ শেষে অকপটে স্বীকার করেছেন দলটির কোচ টমাস টাচেল। তিনি বলেন, নেইমারের যোগ্য বিকল্প দলে না আসা পর্যন্ত আমরা তাকে বিক্রি করতে পারব না। তাকে যদি আমরা ম্যাচ খেলাই তাহলে সে এমন একজন খেলোয়াড় যে একাই ম্যাচ জিতিয়ে দিতে পারে। টাচেল আরও বলেন, নেইমারের দল বদল নিয়ে খুব একটা অগ্রগতি দেখছি না। যাই হোক হয়ত দ্রুতই হয়ে যাবে। তবে দল বদলের জন্যই যে নেইমার খেলছেন না, সেটা সরাসরি মানতে রাজি হননি পিএসজি বস। বলেন, নেইমার এখনও ম্যাচ খেলার পর্যায়ে নেই। ওর পর্যাপ্ত ফিটনেস দরকার। এখনও সে সতীর্থদের সঙ্গে অনুশীলন করেনি। চোটের আশঙ্কা রয়েই গেছে। আমরা তো ঝুঁকি নিতে পারি না। এদিকে বার্সিলোনা তারকা লিওনেল মেসিকে খুশি রাখতেই নাকি নেইমারের দল বদল নিয়ে নাটক হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, আসলে নেইমারকে শেষ পর্যন্ত পিএসজিতেই থাকতে হবে। বা প্যারিসে না থাকলেও তিনি বার্সায় যাবেন না। এখন যা হচ্ছে তা শুধু মেসিকে খুশি করতে! ফরাসী এক দৈনিক জানাচ্ছে, নেইমারের বিষয়ে আসলে যতটা ভাবা হচ্ছে ততটা সিরিয়াস না বার্সা। তারা (বার্সা) আসলে মেসিকে খুশি করতে এটা করছে। বার্সিলোনায় একসঙ্গে খেলার সময় থেকেই মেসি-নেইমারের দারুণ বন্ধুত্ব। ব্রাজিলিয়ান তারকা ক্লাব ছেড়ে গেলেও সাবেক সতীর্থের প্রতি ভালবাসায় ভাটা পড়েনি কারোই। এখন মেসি চান নেইমার আবার বার্সায় ফিরুক। তবে পত্রিকাটি দাবি করেছে, নেইমার নিজেও বার্সায় ফিরতে চান না, তবে তিনি পিএসজিতেও থাকতে চান না।

নেইমারকে ক্লাবে ফেরানোর বিষয়টা বার্সার জন্য খুবই জটিল প্রক্রিয়া। এখানে আর্থিক জটিলতাটাই বেশি। কাতালানরা নেইমারকে প্রথমে লোনে নেয়ার চেষ্টা করতে পারে বা চুক্তিতে উসমান ডেম্বেলে, নেলসন সেমেডো ও ইভান রাকিটিচের মতো খেলোয়াড়কে বিনিময় করার বিষয় ভাবছে। গত শুক্রবার এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে লা লিগার নতুন মৌসুমে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হারের পর বার্সিলোনার আক্রমণে যে সমস্যা আছে তা ফুটে উঠেছে। যে কারণে এখন কেবল মেসি একা নন যিনি বার্সার জন্য নেইমারের প্রত্যাবর্তন আশা করছেন। এতদিন অস্বীকার করে আসলেও নেইমারের বিষয়ে কথা বলতে চায় পিএসজি। জানা গেছে, নেইমারকে লোনে বা পুরোপুরি ছেড়ে দিতে খোলাখুলি কথা বলতে রাজি ফরাসী জায়ান্টরা। বার্সিলোনা ছাড়াও নেইমারকে দলে পেতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ, জুভেন্টাসের মতো পরাশক্তিরা। নেইমারের দল বদল নিয়ে যখন গুঞ্জন তখন অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে পিএসজিও ভিন্ন কৌশল নিয়েছে। তারা দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো দলে রাখেনি সেলেসাও তারকাকে। তাতে করে পিএসজির দৈন্যদশাই স্পষ্টত হচ্ছে।