১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিমোন বিলেসের নয়া ইতিহাস

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবিশ্বাস্য সিমোন বিলেস। ইউএস জিমন্যাস্টিক্স চ্যাম্পিয়নশিপের মিটে ব্যালান্সিং বিম ও ফ্লোরে রীতিমতো চমকে দিলেন তিনি। ব্যালান্সিং বিমের ওপরে ডাবল সামারসল্ট দিয়েছেন। বিম থেকে নামার সময় করেছেন ডাবল টুইস্ট। যা এখন পর্যন্ত আর কেউই করতে পারেননি। এখানেই শেষ নয়, ফ্লোরে ট্রিপল ডাবল ভল্টও করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে শূন্যে দুইবার টুইস্ট করেছেন ২২ বছরের এই তরুণী। এটাও ইতিহাস।

৭০ বছরের মধ্যে প্রথম প্রমীলা এ্যাথলেট হিসেবে ইউএস জিমন্যাস্টিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে ছয়টি অল এ্যারাউন্ড শিরোপা জয়ের রেকর্ডও এখন সিমোন বিলেসের দখলে। তার আগে এই কীর্তি গড়েছিলেন ক্ল্যারা লোমেডি ১৯৫২ সালে। দীর্ঘ সাত দশক পর সেই ক্ল্যারা লোমেডির রেকর্ডে ভাগ বসালেন সিমোন বিলেস।

বিশ্বের জিমন্যাস্টরা তার ডাবল ভল্ট দেখে মুগ্ধ-বিমোহিত। অভিনন্দন জানিয়েছেন কিংবদন্তিদের অনেকেই। এই ভল্টের পর বিলেসকেই আমেরিকার সর্বকালের সেরা বলছেন সকলেই। তরুণ প্রতিভাবান এই জিমন্যাস্ট ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে চারটি সোনা ও একটি ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। আগামী বছর টোকিওতে অনুষ্ঠিত হবে ক্রীড়ার মহাযজ্ঞ। সেই অলিম্পিকেও অংশ নেবেন তিনি। সেখান থেকেও সোনা নিয়ে দেশে ফিরবেন বিলেস। এমন আশাই করছেন তার ভক্ত-অনুরাগীরা।

অলিম্পিকের আগে তার অভাবনীয় পারফর্মেন্সে সম্মোহিত জিমন্যাস্টিক্সের দুনিয়া। বিশ্ব মিটের ঠিক আগে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মিটে এই ইতিহাস করার পর বিলেসকে নিয়ে নানা ভাবনা। কেউ কেউ বলছেন, ‘বিশ্ব মিটে ঠিক একইভাবে এই ভল্ট দেখাতে পারলে বিলেসের নামেই তা হয়ে যেতে পারে।’

সাবেক জিমন্যাস্টদের ধারণা, বিলেস বিশ্ব মিটে এই ভল্ট করলে তা তার নিজের নামেই হয়ে যাবে। কেউ তা আটকাতে পারবে না। সে জন্য বিলেসের তা করাই উচিত। সুযোগ হাতছাড়া করা উচিত নয়। কেউ বলছেন, বিশ্বমিটের মতো টুর্নামেন্টে বিলেস এই ঝুঁকি না-ও নিতে পারেন।

দুরন্ত এই পারফর্মেন্সের পর বিলেস বলেন, ‘আমার এখনও হতাশ লাগে। তার কারণ আমি জানি কতটা ভাল পারফর্ম করতে পারি। কাজেই নিজের সেরা রুটিন অনুযায়ী দর্শকদের জন্য পারফর্ম করি। সেটা করি নিজের জন্যও।’

এই মাত্রা পাওয়া