২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যশোরে ৫শ’ ৩৮ সহকারি শিক্ষক ৫৪ প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য

যশোরে ৫শ’ ৩৮ সহকারি শিক্ষক ৫৪ প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরের আট উপজেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫শ’ ৩৮ সহকারি শিক্ষক ও ৫৪ প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য রয়েছে। ফলে জেলার প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থায় রয়েছে বিশৃঙ্খলা। কোথাও ২ জন বা তিনজন শিক্ষককে গোটা স্কুলের শ্রেণি কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। তবে গত জুন মাসে দু’ধাপে অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষা থেকে শুন্য পদগুলোতে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে বলে প্রাথমিক শিক্ষা সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্র দাবি করেছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, যশোরের আট উপজেলায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে ৫শ’ ৩৮ টি সহকারি শিক্ষক ও ৫৪ টি প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য রয়েছে। খালি পদগুলো পূরণ করতে চলতি বছরের গত ২১ জুন ও ২৮ জুন দু’টি ধাপে নিয়োগ পরীক্ষা হয়। সহকারি শিক্ষক পদে ৫শ’ ৩৮টি শুন্য পদের মধ্যে অভয়নগরে ২৫, কেশবপুরে ৭৭, চৌগাছায় ৫৫, ঝিকরগাছায় ৮৫, বাঘারপাড়ায় ৭৩, মণিরামপুরে ১শ’ ২৮, শার্শায় ৭১ ও সদরে ২৪ টি পদ শুন্য রয়েছে। প্রধান শিক্ষক পদে ৫৪টি শুন্য পদের মধ্যে অভয়নগরে ৭, কেশবপুরে ২, চৌগাছায় ৬, ঝিকরগাছায় ১০, বাঘারপাড়ায় ৬, মণিরামপুরে ১১, শার্শায় ১০ ও সদরে ২ টি পদ শুন্য রয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শেখ অহিদুল আলম বলেন, সহকারি শিক্ষক পদে নিয়োগ নিতে ইতিমধ্যে দু’ধাপে যশোর জেলায় পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফলের পর দ্রুত শুন্য পদগুলোতে নিয়োগ দেয়া হবে। আর প্রধান শিক্ষকের পদগুলোতে সহকারি শিক্ষকদের পদোন্নতির ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হবে। এদিকে জেলার বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষকদের দাবি দ্রুত সময়ে বিদ্যালয়গুলোতে শূন্যপদ পূরণের পাশাপাশি স্কুল গুলেতে দপ্তরি কাম নাইটগার্ড নিয়োগ দেয়া না হলে বিদ্যালয় পরিচালনায় ব্যাঘাত ঘটবে।