২৩ আগস্ট ২০১৯

জাফরুল্লাহসহ ৭১ জনের বিরুদ্ধে হামলা, চুরি, হত্যাচেষ্টার মামলা

জাফরুল্লাহসহ ৭১ জনের বিরুদ্ধে হামলা, চুরি, হত্যাচেষ্টার মামলা

অনলাইন রিপোর্টার ॥ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ ৭১ জনের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা, মারধর ও চুরির অভিযোগে মামলা হয়েছে আশুলিয়া থানায়।

সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা নাছির উদ্দীন বৃহস্পতিবার রাতে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী ছাড়াও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পরিচালক সাইফুল ইসলাম শিশির, ড. আব্দুল কাদের, প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্দুস সালাম, গোলাম মোস্তফা বাবু, আলমগীর হোসেন, মো. সোহেল, আওলাদ হোসেন, রাসেল, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মুরতজা আলী বাবু, ডা. রেজাউল হক, ইশরাফিল, জুয়েল রানা, লুৎফর রহমান, আবুল কালাম, আব্দুস সামাদ, মুজাহিদ, সেন্টু, ইকরাম, আরিফ, অন্তুকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, আশুলিয়ার বাঁশবাড়ি মৌজায় নাছির উদ্দিন ও তাঁ ভাই আবু বক্করের ১৬ শতাংশ জমিতে তাদের বাবা হাজি এফাজ উদ্দিনের নামে একটি মার্কেট রয়েছে। ওই মার্কেটে একটি হোটেলসহ ২০টি দোকান রয়েছে।

“জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নির্দেশে অন্য আসামিরা মঙ্গলবার গভীর রাতে হামলা চালিয়ে হোটেলসহ ১৪টি দোকান ভাঙচুর করে। এতে প্রায় ৬০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়।”

হামলার সময় মার্কেট থেকে এসি, ফ্রিজ, টেলিভিশন, সিলিং ফ্যান, সাউন্ড সিস্টেম, স্বর্ণের চেইন ও নগদ অর্থ লুট করা হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে মামলায়।

এজাহারে বলা হয়, হামলার সময় হোটেল মালিক সাজ্জাদ হোসেনকে আটকে রেখে মারধর করে আসামিরা।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ বলেন, “নাসির উদ্দিনের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এবং পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় মামলা গ্রহণ করা হয়েছে।”

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, “নাছির উদ্দিন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জমি দখল করে মার্কেট নির্মাণ করেছেন। মামলায় যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তা উদ্দেশ্যমূলক ও মিথ্যা। কারা হামলা করে মার্কেট ভেঙে দিয়েছে তা আমাদের জানা নেই।”