২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে এনে উচিত বিচার করা হবে’

‘বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে এনে উচিত বিচার করা হবে’

অনলাইন রিপোর্টার ॥ পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অধিকাংশেরই বিচার হয়েছে। এখনও যারা বিদেশে পালিয়ে আছে, তাদেরও আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে এনে উচিত বিচার করা হবে।

শুক্রবার রাজধানীর পুরান ঢাকার সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সূত্রাপুর থানা আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এম এ মান্নান বলেন, ৭১’র পরাজিত শত্রুরা এখনও ষড়যন্ত্র করছে। তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। তাই ঘরের বাইরে এসে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে সমর্থন করতে হবে। ঘরে বসে চুপচাপ সমর্থন করলে হবে না। ৭৫’র ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছিল তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, আফ্রিকা, ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশে পালিয়ে রয়েছে। আমরা ওইসব দেশগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যেমে ফিরিয়ে এনে বিচার করবো।

তিনি বলেন, দেশ থেকে অন্যায় অবিচার দূর করতে হবে। সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প তুলে ফেলতে হবে। একটি সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে। কারণ আমরা সবাই একই ভাষায় কথা বলি। একই পোশাক পরি। একই খাবার খাই। আমরা সবাই বাঙালি।

ভারতের জি বাংলায় শিল্পী নোবলের জাতীয় সংগীত নিয়ে মন্তব্য প্রসঙ্গে এম এ মান্নান বলেন, নোবেল খুবই স্নেহের। ভালো গান গায়। কিন্তু নোবেল জাতীয় সংগীত নিয়ে জাতির সামনে যে মন্তব্য করেছে তা ঠিক নয়। এখানে ভালো শিল্পীর সঙ্গে জ্ঞান বুদ্ধি রেখে কথা বলা উচিত।

তরুণদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে লাখো প্রাণের বিনিময়ে একটি বাংলাদেশ পেয়েছি। তার ঋণ শোধ করার জন্য আমরা তার নাম বার বার স্মরণ করি। তাই শুধু স্মরণ করলেই হবে না, কাজও করতে হবে। কারণ বঙ্গবন্ধু স্বাধীন একটি দেশ দিয়ে গেছেন। কথা বলার অধিকার দিয়ে গেছেন। আমাদের দিন শেষ। আমরা চলে যাচ্ছি। এ দেশের নেতৃত্ব দেবেন আপনারা।

সূত্রাপুর থানা সভাপতি আহসান সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, কৃষক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ জাহাঙ্গীর আলম, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি রফিকুল আলম, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আবুল হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, সাংবাদিক সমীরণ রায়, ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অসীম কুমার বৈদ্য প্রমুখ।