১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুলিশে চাকরি পেলেন রোহিঙ্গা যুবক

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ পুলিশ কনস্টেবল পদে কক্সবাজার থেকে এবার নিয়োগ পেয়েছেন এক রোহিঙ্গা যুবক। গত ১ জুলাই কক্সবাজার জেলায় ৩৮৬ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগ পায়। পুলিশ লাইন্স মাঠে নিয়োগ কমিটির প্রধান ও কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন এ ফল ঘোষণা করেন। এদের মধ্যে নিয়োগ পান রোহিঙ্গা বংশোদ্ভুত কনস্টেবল মোঃ রিদুয়ান। টেকনাফ হোয়াইক্যং ৭নং ওয়ার্ড পূর্ব সাতঘরিয়াপাড়ায় বসবাসরত মিয়ানমারের নাগরিক জনৈক ছাবের আহম্মদের পুত্র রিদুয়ান। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এনিয়ে হোয়াইক্যং পশ্চিম সাতঘরিয়াপাড়া মধ্যম হ্নীলা এলাকার নুরুল কবির নামের একব্যক্তি রিদুয়ানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সরকারী বিভিন্ন দফতরে আপত্তি জানান। জানা গেছে, বাংলাদেশ সরকারের পুলিশ বিভাগকে আরও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে দেশব্যাপী পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। উক্ত সিদ্ধান্তের আলোকে চলতি বছরের মে মাসে কক্সবাজার জেলা পুলিশে কনস্টেবল পদে লোক নিয়োাগ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হয়। জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে গত ২৭ জুন ৭৫০ কনস্টেবল পদে ১০৩ টাকা খরচ করে চাকরি প্রত্যাশীরা কক্সবাজার সরকারী মহিলা কলেজ ও সৈকত বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে লিখিত পরীক্ষা দিয়েছিল। লিখিত পরীক্ষার ফলা প্রকাশের পর একইস্থানে সোমবার বেলা ১১টা থেকে মৌখিক পরীক্ষায় ৩৮৬ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) নিয়োগের জন্য চূড়ান্তভাবে মনোনীত হয়। মনোনীত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন হচ্ছে টেকনাফ থানাধীন মধ্যম হ্নীলা হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পূর্ব সাতঘরিয়া পাড়ায় বসবাসরত মিয়ানমারের নাগরিক সাবের আহমেদের পুত্র মোঃ রিদুয়ান।

জানা যায়, সাবের আহমেদ ১৯৯২ সালে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে হোয়াইক্যং ইউনিয়নে বসবাস শুরু করে। পরবর্তীতে ১৯৯৬ সালে সরকারের ভোটার তালিকায় বিভিন্ন অপকৌশলের মাধ্যমে নাম অন্তর্ভুক্ত করে (যার ভোটার নাম্বার- ৫৬১০৫০৬০৩০৭১০১১৬ এবং ২০০৮ সালে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় জাতীয় পরিচয় পত্র প্রণয়নকালে সাবের আহমেদ বিভিন্ন কৌশলে জাতীয় পরিচয়পত্রে তার নাম অন্তর্ভুক্ত করে (যার জাতীয় পরিচয়পত্রে আইডি নাম্বার- ২২১৯০৭৯৫৯৭০৫৮।

এই মাত্রা পাওয়া